কোম্পানি সংবাদ

বারাকা পাওয়ারের সহযোগী প্রতিষ্ঠানের বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: তেল ও জ্বালানি খাতের কোম্পানি বারাকা পাওয়ার লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান কর্ণফুলী পাওয়ার লিমিটেড বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
প্রাপ্ত তথ্যমতে, ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনক্ষম এই বিদ্যুৎকেন্দ্রটি গত ২০ আগস্ট থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাণিজ্যিকভাবে শুরু করে। আর গত ১২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড (বিপিডিবি) কোম্পানিটির বাণিজ্যিক উৎপাদনের তারিখ (সিওডি) উল্লেখ করেছে।
উল্লেখ্য, কর্ণফুলী পাওয়ার লিমিটেডের ৫১ শতাংশ শেয়ার বারাকা পাওয়ারের সহযোগী প্রতিষ্ঠান বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার লিমিটেডের। এছাড়া বিদ্যুৎকেন্দ্রটির ২৫ শতাংশ শেয়ার ধারণ করছে বারাকা পাওয়ার লিমিটেড। স্বাধীন বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী (আইপিপি) কর্ণফুলি পাওয়ার হেভি ফুয়েল অয়েল-নির্ভর (এইচএফও) একটি দীর্ঘমেয়াদি বিদ্যুৎকেন্দ্র।
এদিকে ২০১৮ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করে। আলোচিত সময় কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) করে এক টাকা ৭৫ পয়সা এবং ৩০ জুনে শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়ায় ১৮ টাকা ৮০ পয়সা, যা আগের বছর একই সময় ছিল যথাক্রমে দুই টাকা ৬৩ পয়সা ও ২০ টাকা ১২ পয়সা। অর্থাৎ এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানিটির ইপিএস কমেছে ৮৮ পয়সা। এদিকে গতকাল ডিএসইতে কোম্পানিটির শেয়ারদর চার দশমিক ১২ শতাংশ বা এক টাকা ১০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ২৭ টাকা ৮০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ২৭ টাকা ৩০ পয়সা। ওইদিন তিন লাখ ৩৪ হাজার ২২১টি শেয়ার মোট ২৫৬ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৯০ লাখ ৭৩ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনিম্ন ২৬ টাকা ৭০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৭ টাকা ৮০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর ২৫ টাকা ৫০ পয়সা থেকে ৩৩ টাকা ৭০ পয়সায় ওঠানামা করে।
কোম্পানিটি ২০১১ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ৪০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ২২০ কোটি ছয় লাখ ১০ হাজার টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৫৮ কোটি ৯৬ লাখ ৯০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির ২২ কোটি ৬১ হাজার ৩৬৭টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে ১৮ দশমিক এক শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ৩৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৪৭ দশমিক ১৪ শতাংশ শেয়ার। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত ১৫ দশমিক ৬০ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ১৬ দশমিক ১২।

সর্বশেষ..