সারা বাংলা

বারির ফসল উৎপাদনের ওপর ফরিদপুরে মাঠদিবস

প্রতিনিধি, ফরিদপুর: ফরিদপুরে খামার পদ্ধতি গবেষণা করে কৃষকের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে সরেজমিন গবেষণা বিভাগ (সগবি) ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি)। সমতল ইকো-সিস্টেম প্রকল্পের আওতায় এতে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের এনএটিপি ফেজ-২-এর অর্থায়নে সদর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের বসুনরসিংহদিয়া গ্রামে বারি উদ্ভাবিত তেল (সূর্যমুখী), ডাল (মসুর ও খেসারি) ও মসলার (ধনিয়া ও কালোজিরা) উৎপাদন কার্যক্রমের ওপর মাঠদিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সগবি প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সেলিম আহম্মেদ। সভাপতিত্ব করেন কৃষিবিদ মো. রফি উদ্দিন। প্রধান অতিথি ছিলেন বারির মহাপরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলাম।

বক্তারা বলেন, ডাল, তেল ও মসলা উৎপাদনে ফরিদপুর একটি অগ্রগামী জেলা হিসেবে বিবেচিত। জেলায় মসুর (প্রায় ২২ হাজার হেক্টর), খেসারি (প্রায় ১৩ হাজার হেক্টর), কালোজিরা (প্রায় দুই হাজার হেক্টর) ও ধনিয়া (প্রায় ছয় হাজার হেক্টর) চাষ জনপ্রিয়। বর্তমানে সূর্যমুখীর চাষও হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আগত কৃষকরা বারি সূর্যমুখী-৩, বারি কালোজিরা-১, বারি ধনিয়া-২ ও বারি মসুর-৮-এর উৎপাদন প্লট পরিদর্শন করেন। এ ধরনের জাত চাষের ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন তারা।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে পরিবর্তনশীল জলবায়ু মোকাবিলায় উপযোগী ডাল, তেল ও মসলাজাত পণ্য উৎপাদনে প্রযুক্তি ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তায় উচ্চ ফলনশীল জাত চাষাবাদের জন্য কৃষকের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..