করপোরেট কর্নার দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

বার্জারের কাছে ৩০ একর জমি হস্তান্তর বেজার

নিজস্ব প্রতিবেদক : যুক্তরাজ্যভিত্তিক বিশ্বের অন্যতম রং উৎপাদন প্রতিষ্ঠান বার্জার বাংলাদেশ লিমিটেডের কাছে ৩০ একর জমি হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)। গতকাল চট্টগ্রামের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জমি হস্তান্তর করা হয়।

বেজা সূত্র বলছে, বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে (মিরসরাই, ফেনী ও সীতাকুণ্ড অর্থনৈতিক অঞ্চল) বার্জার বাংলাদেশে তাদের তৃতীয় ফ্যাক্টরি স্থাপন করতে যাচ্ছে। এ কারখানা স্থাপনে তারা ২০০ থেকে ২৫০ কোটি টাকা খরচ করবে। এর নির্মাণকাজ শেষ হতে পাঁচ বছর লাগতে পারে। প্রায় ২০০ বছরের রং উৎপাদনের অভিজ্ঞতা রয়েছে বার্জারের। তারা বাংলাদেশে প্রথম কারখানা স্থাপন করে ১৯৭০ সালে চট্টগ্রামের কালুরঘাটে। পরবর্তীকালে ১৯৯৯ সালে ঢাকার সাভারে বার্জার আরেকটি কারখানা স্থাপন করে।

জমি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রূপালী চৌধুরী বলেন, ‘মিরসরাইয়ে শিল্প স্থাপন বার্জারের জন্য একটি মাইলফলক এবং বেজার সার্বিক সহায়তা ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকনির্দেশনায় বাংলাদেশে পরিবেশবান্ধব রংশিল্প বিকাশে বার্জার কাজ করে যাব। শিগগিরই আমরা শিল্প স্থাপনের কাজ শুরু করব।’ বার্জারকে অভিনন্দন জানিয়ে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি) মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘বিনিয়োগের নতুন ক্ষেত্র উপস্থাপনের আরও একটি ক্ষেত্র উম্মোচিত হলো।’

এ সময় বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, ‘অর্থনৈতিক অঞ্চলের হাত ধরে বাংলাদেশ বিনিয়োগবান্ধব সুস্থ পরিবেশ গড়ে তুলতে সমর্থ হয়েছে এবং বিশ্বের কাছে উন্নয়নের একটি রোল মডেল স্থাপন করেছে। মিরসরাইতে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মিত হচ্ছে। এর ফলে এদেশে শিল্পায়নের অভ‚তপূর্ব বিপ্লব সাধিত হবে এবং জনগণের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যগুলো পূরণ হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের নিরিখে সবুজ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার জন্য নীতিনির্ধারণের কাজও শিগগিরই বাস্তবায়িত হবে। ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার স্থাপনের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের অনলাইনে সেবা প্রদান নিশ্চিত করা হচ্ছে।’

বেজা বলছে, বার্জারের এ সার্বিক কর্মকাণ্ডে প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ লোকের কর্মসংস্থান হবে, যা ভবিষ্যতে আরও বৃদ্ধি পাবে। বরাদ্দকৃত জমিতে প্রশাসনিক ভবন, ওয়্যারহাউস, লজিস্টিক এলাকা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পানি শোধনাগার, সড়কসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় স্থাপনা গড়ে তোলা হবে। বাকি জমিতে ডরমেটরি, স্বাস্থ্যসেবা, প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও সবুজায়ন করা হবে। পরিবেশের ওপর যাতে কোনো ক্ষতিকর প্রভাব না পড়ে, সেজন্য পরিবেশবান্ধব প্রযুক্তি

ব্যবহারের পাশাপাশি ‘পরিবেশ ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা’ গ্রহণ করা হবে।

বেজা চট্টগ্রামের মিরসরাই ও ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলায় প্রায় ৩০ হাজার একর জমির ওপর একটি পূর্ণাঙ্গ শিল্প শহর গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করছে, যার নামকরণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর’। শিল্প নগরটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে মাত্র ১০ কিলোমিটার এবং বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম থেকে মাত্র ৬৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

এ শিল্প নগরে বিশ্বমানের সব সুবিধা থাকবে, যেমন বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, সমুদ্রবন্দর, কেন্দ্রীয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা/পানি শোধনাগার, আবাসিক এলাকা, বাণিজ্যিক এলাকা, বিশ্ববিদ্যালয় ও হাসপাতাল প্রভৃতি। এ লক্ষ্যে বেজা সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের সহযোগিতায় সংযোগ সড়ক, ভ‚মি উন্নয়ন ও প্রতিরক্ষা বাঁধ, ব্রিজ নির্মাণ এবং গ্যাস সংযোগ লাইন স্থাপন করছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..