প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বিওতে লভ্যাংশ পাঠিয়েছে স্কয়ার ফার্মা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিনিয়োগকারীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাবে বোনাস লভ্যাংশ পাঠিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানি স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরের জন্য ঘোষিত বোনাস লভ্যাংশ বিও হিসাবে গত ১৯ ডিসেম্বর পাঠিয়েছে কোম্পানিটি।

উল্লেখ্য, ওষুধ ও রসায়ন খাতের ‘এ’ ক্যাটাগরির এ কোম্পানিটি ১৯৯৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। কোম্পানিটি ৩০ জুন ২০১৬ পর্যন্ত সমাপ্ত ১৫ মাসের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের ৪০ শতাংশ নগদ ও ১০ শতাংশ বোনাসসহ ৫০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৪ টাকা ৮০ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৫৭ টাকা আট পয়সা, যা জানুয়ারি ২০১৪ থেকে মার্চ ২০১৫ পর্যন্ত সময়ে ইপিএস ছিল ১০ টাকা ৪৬ পয়সা ও এনএভি ছিল ৪৪ টাকা ৯৫ পয়সা।

২০১৫ সালের সমাপ্ত বছরে বিনিয়োগকারীদের ৩০ শতাংশ নগদ ও সাড়ে ১২ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। কোম্পানিটি ইপিএস হয়েছিল ১০ টাকা ৮০ পয়সা এবং এনএভি ৫৬ টাকা ৯ পয়সা ছিল। আগের বছর একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১০ টাকা ২৬ পয়সা ও ৫৫ টাকা ৪৮ পয়সা। ওই বছর কোম্পানিটি কর-পরবর্তী মুনাফা করেছিল ৫৯৮ কোটি ৩৮ লাখ ১০ হাজার টাকা, যা আগের বছরে ছিল ৪৯৪ কোটি ৪৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

গতকাল কোম্পানিটির শেয়ারদর আগের দিনের চেয়ে  শূন্য দশমিক ৯৮ শতাংশ বা দুই টাকা ৪০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি শেয়ার সর্বশেষ ২৪৭ টাকায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ২৪৫ টাকা ৪০ পয়সা। দিনজুড়ে ১৩ লাখ ৪৪ হাজার ৫৪৮টি শেয়ার এক হাজার ৮৬৫ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৩২ কোটি ৯৫ লাখ ৯৩ হাজার টাকা। শেয়ারদর সর্বনি¤œ ২৪৪ টাকা ৫০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ২৭৪ টাকায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ২৪২ টাকা ৫০ পয়সা থেকে ২৭৪ টাকার মধ্যে ওঠানামা করে।

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত ইপিএস ছিল তিন টাকা ৮৯ পয়সা। এটি আগের বছর একই সময় ছিল তিন টাকা ১৮ পয়সা। অর্থাৎ ইপিএস বেড়েছে ৭১ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত এনএভি ছিল ৬৯ টাকা ১৭ পয়সা, যা একই বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত ছিল ৬৫ টাকা চার পয়সা।

অর্থাৎ এনএভি বেড়েছে চার টাকা ১৩ পয়সা। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় অনুপাতে ২২ দশমিক ৭২ শতাংশ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ১৫ দশমিক ৭৭ শতাংশ। এক হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৬২৩ কোটি ৫৮ লাখ ৭০ হাজার টাকা।