Print Date & Time : 22 January 2022 Saturday 4:56 pm

বিক্রয়কেন্দ্রে তামাকজাত পণ্যের প্রদর্শনী ও খুচরা বিক্রি বন্ধ চান ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান ‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫’ আইনে তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা পুরোপুরি নিষেধ। তবে বিদ্যমান আইনে বিক্রয়কেন্দ্রে তামাকজাত পণ্যের প্রদর্শনী বন্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই। আর এ সুযোগে তামাক কোম্পানিগুলো বিক্রয়কেন্দ্রে তাদের পণ্যের প্রদর্শনীর মাধ্যমে মূলত পণ্যের প্রসার ঘটাচ্ছে। আর এজন্য সুপারমার্কেটসহ সব বিক্রয়কেন্দ্রে তামাকজাত পণ্যের প্রদর্শনী ও খুচরা বিক্রি বন্ধে বর্তমান আইনের সংশোধন চান বাংলাদেশ সুপারমার্কেট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএসওএ)।

গত বুধবার বিকাল সাড়ে ৪টায় রাজধানীর মহাখালীতে বাংলাদেশ সুপারমার্কেট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের এক যৌথ মতবিনিময় সভায় বক্তারা এ দাবি জানান। অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নিয়াজ রহিম, ক্যাম্পেইন ফর টোবাকো ফ্রি কিডস বাংলাদেশের গ্র্যান্টস ম্যানেজার আবদুস সালাম মিয়া, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের স্বাস্থ্য সেক্টরের সহকারী পরিচালক মো. মোখলেছুর রহমান, তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের সমন্বয়কারী মো. শরিফুল ইসলাম, মিডিয়া ম্যানেজার রেজাউর রহমান রিজভী, প্রোগ্রাম অফিসার শারমীন আক্তার রিনি, অদূত রহমান ইমন প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান উপদেষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নিয়াজ রহিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ২০৪০ সালে তামাকমুক্ত করার ভিশনের সঙ্গে অ্যাসোসিয়েশন ঐকমত্য পোষণ করছে। এছাড়া আগামী প্রজš§কে রক্ষার্থে তামাকজাত পণ্যের প্রদর্শনের বিরুদ্ধে আইন করা উচিত বলে আমরা মনে করছি।

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন বলেন, তামাকের কুফল যেহেতু সব দেশেই সর্বজনস্বীকৃত, তাই এটার নিয়ন্ত্রণ প্রয়োজন।