প্রচ্ছদ প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

বিক্রির চাপে কোনো খাতই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি

রুবাইয়াত রিক্তা: পতনের ধারাবাহিকতায় গতকাল পুঁজিবাজারে আরও বড় পতন হয়েছে। এ নিয়ে গত দুই কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ৭২ পয়েন্ট। এর মধ্যে গতকাল কমেছে প্রায় ৫৩ পয়েন্ট। লেনদেন কমে ২৮৮ কোটি টাকায় নেমে এসেছে। গতকাল ৮৩ শতাংশ কোম্পানির বিনিয়োগকারীরা শেয়ার বিক্রি করেছেন। আর বিক্রির চাপে মাত্র ৩০টি কোম্পানির দর বেড়েছে। কোনো খাতই গতকাল মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি। সিরামিক খাত, বিবিধ, কাগজ ও মুদ্রণ, সেবা ও আবাসন, ভ্রমণ এবং অবকাশ খাত শতভাগ নেতিবাচক ছিল।

১৫ শতাংশ লেনদেন হয়ে প্রকৌশল খাত শীর্ষে থাকলেও এ খাতে মাত্র চার কোম্পানির দর বেড়েছে। ১৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়ে শীর্ষে উঠে এলেও ন্যাশনাল টিউবসের ১৭ টাকা ৭০ পয়সা দরপতন হয়। মুন্নু জুট স্টাফলার্সের সাত কোটি ৮৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ৭৬ টাকা ৬০ পয়সা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হয় প্রায় ১৫ শতাংশ। এ খাতে আট কোম্পানির দর বেড়েছে। সিলকো ফার্মার সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১০ পয়সা। রেনাটার সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় তিন টাকা ৮০ পয়সা। স্কয়ার ফার্মার প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৩০ পয়সা। ৩০ জুন, ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ৪২ শতাংশ নগদ ও সাত শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে কোম্পানিটির। এরপরে বিমা খাতে লেনদেন হয় ১৪ শতাংশ। এ খাতে মাত্র চার কোম্পানির দর বেড়েছে। এর মধ্যে পিপলস ইন্স্যুরেন্স ও প্রগতি ইন্স্যুরেন্স দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে উঠে আসে। ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের সোয়া সাত কোটি টাকা লেনদেন হলেও আড়াই টাকা দরপতন হয়। ব্যাংক খাতে ১২ শতাংশ লেনদেন হয়। দর বেড়েছে সাত কোম্পানির। এছাড়া জ্বালানি খাতে আটটি কোম্পানির দর বেড়েছে। ইউনাইটেড পাওয়ারের সোয়া ৯ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে ৯০ পয়সা। দর বৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে উঠে আসে শাহজিবাজার পাওয়ার ও পদ্মা অয়েল। বস্ত্র খাতে মাত্র চার কোম্পানির দর বেড়েছে। এর মধ্যে আড়াই শতাংশ বেড়ে মতিন স্পিনিং দর বৃদ্ধিতে তৃতীয় অবস্থানে ছিল। এছাড়া খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের গ্লোল্ডেন হার্ভেস্ট এগ্রো সোয়া ৯ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে।

টেলিযোগাযোগ খাতের গ্রামীণফোনের প্রায় সাত কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে চার টাকা ৮০ পয়সা। কোম্পানিটি দর বৃদ্ধিতে পঞ্চম অবস্থানে ছিল। বিবিধ খাতের বিএসসির সোয়া পাঁচ কোটি টাকা লেনদেন হলেও দর অপরিবর্তিত ছিল।

সর্বশেষ..