কোম্পানি সংবাদ

বিক্রির চাপে ডিএসইতে ৬০ শতাংশ কোম্পানির দরপতন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিক্রির চাপে গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৬০ শতাংশ কোম্পানি দর হারিয়েছে। সে সঙ্গে সবগুলো সূচকের পতন হয়। প্রধান সূচক ডিএসইএক্সের ৪১ পয়েন্ট পতন হয়। গতকাল লেনদেনের শুরুতে সূচক ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও ২০ মিনিটের মধ্যে বিক্রির চাপ শুরু হলে সূচকে পতন নেমে আসে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সামান্য ওঠার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। শেষ পর্যন্ত প্রায় ৪১ পয়েন্ট নেতিবাচক অবস্থানে থেকে লেনদেন শেষ হয়। বাকি দুই সূচকও পতনে ছিল। লেনদেনও আগের দিনের তুলনায় কমেছে। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র দেখা গেছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪০ দশমিক ৯৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৮৩ শতাংশ কমে চার হাজার ৮৮৮ দশমিক শূন্য এক পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ১৬ দশমিক ৩৪ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৪২ শতাংশ কমে এক হাজার ১৩০ দশমিক ৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক ১৫ দশমিক ৯৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৯১ শতাংশ কমে এক হাজার ৭৩৫ দশমিক ৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন দুই হাজার ৫৮৩ কোটি টাকা কমে চার লাখ ৬৮ হাজার ৪৬৭ কোটি ৪২ লাখ ৭০ হাজার ২৮ টাকা হয়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৩৭১ কোটি ৫৩ লাখ ৭৭ হাজার ১৯০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৪৩৫ কোটি ৫৬ লাখ ১৮ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ৬৪ কোটি শূন্য দুই লাখ টাকা। এদিন ৯ কোটি ৭৬ লাখ ৮৯ হাজার ৬৫৫টি শেয়ার এক লাখ ১৮ হাজার ৬৮১ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫২ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৭টির, কমেছে ২১৪টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪১টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল টিউবস। কোম্পানিটির ২০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর কমেছে সাত টাকা ৪০ পয়সা। এরপরে মুন্নু জুট স্টাফলার্সের সাড়ে ১৯ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ১১৩ টাকা ৭০ পয়সা। স্কয়ার ফার্মার ১৫ কোটি ২৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ছয় টাকা ৮০ পয়সা। সিনোবাংলার ১১ কোটি ২৯ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ছয় টাকা ৭০ পয়সা। লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ৯ কোটি শূন্য ৯ লাখ টাকা, স্টাইল ক্রাফটের সাত কোটি ৬৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়। জেএমআই সিরিঞ্জের সাত কোটি ৬৩ লাখ টাকা, ফরচুন শুজের সাত কোটি ৩৮ লাখ টাকা, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের সাত কোটি টাকা, ইউনাইটেড পাওয়ারের ছয় কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
৯ দশমিক ৮৬ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স। প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের দর ৯ দশমিক ৮২ শতাংশ, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের দর ৯ দশমিক ৫১ শতাংশ, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্সের দর ৯ শতাংশ, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দর আট দশমিক ৭২ শতাংশ, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের দর আট দশমিক ৫৮ শতাংশ, কর্ণফুলী ইন্স্যুরেন্সের দর সাত দশমিক ৬৯ শতাংশ, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দর সাত দশমিক ৫৮ শতাংশ, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের দর ছয় দশমিক ৭৬ শতাংশ, আইসিবি এএমসিএল সেকেন্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডের দর ছয় দশমিক ৬৬ শতাংশ বেড়েছে।
৯ দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ কমে দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে মুন্নু সিরামিক। শ্যামপুর সুগার মিলের দর আট দশমিক ৮৬ শতাংশ, আলহাজ্ব টেক্সটাইলের দর ছয় দশমিক ৫৫ শতাংশ, মুন্নু জুট স্টাফলার্সের দর ছয় দশমিক ২৪ শতাংশ, গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের দর ছয় দশমিক শূন্য পাঁচ শতাংশ, ইয়াকিন পলিমারের দর পাঁচ দশমিক ৭১ শতাংশ, প্রগ্রেসিভ লাইফের দর পাঁচ দশমিক ৬৩ শতাংশ, জেএমআই সিরিঞ্জের দর পাঁচ দশমিক ৫৫ শতাংশ, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের দর পাঁচ দশমিক ৩৭ শতাংশ ও ওয়াটা কেমিক্যালে দর পাঁচ দশমিক ৩০ শতাংশ কমেছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৬২ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা দশমিক ৬৯ শতাংশ কমে ৯ হাজার ১৪ দশমিক ১৪ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১০২ দশমিক শূন্য পাঁচ পয়েন্ট বা দশমিক ৬৮ শতাংশ কমে ১৪ হাজার ৮৪৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৬২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৭টির, কমেছে ১৬২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৩টির দর।
সিএসইতে এদিন ৩৫ কোটি ৬৫ লাখ ৩৮ হাজার ৫২ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩৯ কোটি ৩৯ লাখ আট হাজার ৩৭৩ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসাবে লেনদেন কমেছে তিন কোটি ৭৩ লাখ টাকা। সিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে বিএটিবিসি। কোম্পানিটির ১১ কোটি ১৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। ম্যারিকোর চার কোটি ১৭ লাখ টাকার, লিন্ডে বিডির তিন কোটি ৯৫ লাখ টাকার, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের এক কোটি ৬৫ লাখ টাকার, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের এক কোটি ২৩ লাখ টাকা, ডরিন পাওয়ারের এক কোটি ১৩ লাখ টাকার, গ্রীন ডেল্টা মিউচুয়াল ফান্ডের ৮২ লাখ টাকার, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের ৬১ লাখ টাকা, স্কয়ার ফার্মার ৫১ লাখ টাকার, বিএসসিসিএলের ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..