এসএমই

বিজনেস আইডিয়া: কলম তৈরি

নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য ঠিক করতে হবে, কী দিয়ে শুরু করবেন। এজন্য দরকার অল্প পুঁজিতে শুরু করা যায় এমন ব্যবসা। এ ধরনের উদ্যোক্তার পাশে দাঁড়াতে শেয়ার বিজের সাপ্তাহিক আয়োজন

কলম তৈরি

অনেকের মতে, কম খরচে লাভজনক ব্যবসা কলম তৈরি ও বিপণন। কেননা স্কুল-কলেজ ও অফিস-আদালত

প্রায় সব জায়গায় এর চাহিদা রয়েছে। তাছাড়া মেশিনের সাহায্যে কম খরচে অল্প সময়ে অধিক কলম উৎপাদন করা যায়। প্রতিদিন প্রায় দু-তিন হাজার কলম উৎপাদন করা সম্ভব। তাই চাহিদার প্রতি লক্ষ রেখে শুরু করতে পারেন কলম উৎপাদনের ব্যবসা।

শুরুর আগে

ব্যবসাটি শুরু করতে চাইলে আপনাকে ভেবেচিন্তে শুরু করতে হবে। কারণ এটি একটি উৎপাদনমুখী ব্যবসা। প্রথমে দেখতে হবে পুঁজি রয়েছে কি না। এরপর বাজার সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। যেহেতু বর্তমানে নানা ব্র্যান্ডের কলম বিপণন হচ্ছে, তাই মানসম্মত কলম তৈরি করার মানসিকতা থাকতে হবে। এ বিষয়গুলো মাথায় রেখে তবেই ব্যবসাটি শুরু করুন।

উপকরণ

#            কলম তৈরির মেশিন অর্থাৎ কালি মেশিন, হাওয়া মেশিন, পয়েন্ট মেশিন, অ্যাডাপ্টর মেশিন প্রভৃতি

#            কলম তৈরির বডি (কয়েক ধরনের বডি পাওয়া যায়)

#            পয়েন্ট, ক্যাপ, অ্যাডাপ্টর, কলম রাখার প্যাকেট পাতা, কালি প্রভৃতি

প্রস্তুত প্রণালি

কলম তৈরির পুরোটাই মেশিননির্ভর। মেশিনের মাধ্যমে কলমের বডির ভেতর কালি প্রবেশ করাতে হবে। কালি ভরা শেষ হলে মেশিনের সাহায্যে বোতাম ভালোভাবে লাগিয়ে হাওয়া মেশিনের সাহায্যে হাওয়া দিতে হয়। এরপর যদি বডির মধ্যে কালি লেগে যায়, তাহলে অকটেন দিয়ে বডির চারপাশের কালি মুছে ফেলতে হবে। এমন কয়েকটি ধাপ পেরোনোর পর তৈরি হয় কলম।

বাজারজাতকরণ

কলমের প্রধান ভোক্তা হচ্ছে শিক্ষার্থী। তাছাড়া কলম সব শ্রেণির মানুষের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বস্তু। কলম উৎপাদন করে প্রথমে স্থানীয় মুদি দোকানে বিক্রি শুরু করতে পারেন। এরপর শহরের স্টেশনারি দোকানগুলোয় পাইকারি হিসেবে বিক্রি করতে পারেন।

যোগ্যতা

কলম তৈরির ব্যবসা শুরু করতে চাইলে শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন নেই। হিসাবজ্ঞান থাকলে শুরু করা যায়।

তবে এ ব্যবসায় অবশ্যই প্রশিক্ষণ লাগবে। অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে স্বল্প সময়ে কলম তৈরির প্রশিক্ষণ দিয়ে

থাকে। তাদের কাছে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। অথবা পরিচিত কেউ এ ব্যবসায় যুক্ত থাকলে তার কাছ থেকেও ধারণা নিতে পারেন।

আয়-ব্যয়

উৎপাদনমুখী ব্যবসা হওয়ায় প্রথম দিকে একটু বেশিই ব্যয় হয়। অর্থাৎ কলম উৎপাদনের জন্য কয়েকটি মেশিন ও উপকরণ কিনতে প্রায় এক লাখ টাকা লাগবে। প্রতিটি কলম তৈরি করতে খরচ হবে প্রায় দুই টাকা। বিক্রি করতে পারবেন আড়াই টাকা থেকে তিন টাকায়। প্রতি মাসে ২০ হাজার কলম বিক্রি করা গেলে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা অনায়াসে মুনাফা করতে পারবেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..