প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বিজনেস আইডিয়া : অনলাইনে লন্ড্রি

বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবহনসেবা প্রতিষ্ঠান উবারের (যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বহুজাতিক অনলাইন নেটওয়ার্ক কোম্পানি) কোনো গাড়ি নেই। এটি কেবল অনলাইনে সেবা দিয়ে থাকে আর কাস্টমার সাপোর্টও অনেকটা ভার্চুয়াল। উবারকে উদাহরণ হিসেবে নিয়ে আপনিও শুরু করতে পারেন অনলাইনে ব্যবসা। অনেক কিছুর মাঝ থেকে প্রায় বিনা পুঁজিতে বেছে নিতে পারেন দু’একটি অপ্রচলিত ব্যবসা। পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন মৌলিক ব্যবসাও

কাপড় ধোয়ার অভিজ্ঞতা সবারই কম-বেশি আছে। সাবান ঘষে ঘষে কাপড় পরিষ্কার করা অথবা ডিটারজেন্ট পাউডার দিয়ে ভিজিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলা। এরপর রোদে শুকানো। সবশেষে ইস্ত্রি করা। আপাত সহজ মনে হলেও শহুরে ব্যস্ততায় টাইমিংই মূল। তাছাড়া কাপড়ের ধরন বুঝে ধোয়া, শুকানো, ইস্ত্রি ইত্যাদি বিষয়েও সচেতনতার অভাব রয়েছে। অনেকে আবার কাজের বুয়াদের ধোয়া অপছন্দ করেন।

সময় বাঁচাতে ও আনুষঙ্গিক অন্যান্য ঝামেলা থেকে শহরবাসীকে রেহাই দিতে অনলাইনে লন্ড্রিসেবা চালু করতে পারেন। বাসাবাড়ি থেকে কাপড়চোপড় নিয়ে সাফাই থেকে শুরু করে ইস্ত্রি করে পৌঁছে দিন মালিকের কাছে। পশ্চিমাদের দেখাদেখি ভারতের কয়েকটি শহরে এ ধরনের অনলাইন সেবা চালু আছে।

তাই অল্প পুঁজির এ ব্যবসায় আপনিও লগ্নি করতে পারেন। করে নিতে পারেন নিজের কর্মসংস্থান। অনলাইন ব্যবসায় নিজস্ব ই-কমার্স ওয়েবসাইটের বিকল্প নেই। নিজের মতো করে গুছিয়ে নিন সাইটটি। গুরুত্ব দিন ক্রেতার চাহিদার ওপর। তবে এ ওয়েবসাইটে নিজস্ব ডোমেইন ও হোস্টিং থাকা বাধ্যতামূলক।

ব্যবসার প্রচারে ফেসবুক ব্যবহার করতে পারেন। আপনার পেইজের গ্রাহকের সংখ্যা বাড়ান। ঘরে বসে লন্ড্রিসেবার স্ট্যাটাস আপডেট করুন। জুড়ে দিন ফটো। গ্রাহকের যে কোনো কমেন্টকে গুরুত্ব দিন। মেসেজের উত্তর দিন। টাকা খরচ করে ফেসবুক পোস্ট বুস্ট করে নিতে পারেন; এতে ক্রেতা আকৃষ্ট হবেন। পরের ধাপে মার্কেটপ্লেসে একটি অ্যাকাউন্ট খুলুন। মার্কেটপ্লেসে ডোমেইন এবং হোস্টিংয়ের ঝামেলা নেই।

কাপড়ের ওজন অনুযায়ী ওয়েবসাইটে খরচাপাতির হিসাব দিয়ে রাখুন। সংগ্রহ ও ডেলিভারির সময়, ফোন নম্বর ইত্যাদি উল্লেখ করুন। ওয়েবসাইটে লগ অন সুযোগ রাখুন। কাস্টমার সহজে সেখানে প্রবেশ করে একটা অ্যাপয়েন্টমেন্ট দিয়ে রাখবেন। আপনার প্রতিষ্ঠানের কর্মী গিয়ে জামাকাপড় নিয়ে আসবেন। ধোয়া-শুকানো-ইস্ত্রি প্রভৃতি শেষে আবার কাস্টমারের বাসায় পৌঁছে দিয়ে আসবেন। কোনো গ্রাহক নিজে থেকে সংগ্রহ করতে চাইলে কাজ শেষে তাকে মেসেজ দিন।

অনলাইন মার্কেটিংয়ের বাইরে অফলাইনেও প্রচার চালাতে হবে। কিছু লিফলেট অথবা হ্যান্ডবিল তৈরি করে ফেলুন। বাসার কাছাকাছি পাবলিক প্লেসে পোস্টারিং করে ফেলুন। বাসার কাছে কোনো কলেজ বা স্কুল থাকলে সেখানেই সেঁটে দিন লিফলেটগুলো। কাগজটি রঙিন হলে ভালো হয়। নাম, ফোন নম্বর, ই-মেইল ও ওয়েব ঠিকানা জুড়ে দিন লিফলেটে।

বিজনেস কার্ড প্রস্তুত রাখুন। সম্ভাব্য খরিদ্দারের সঙ্গে কথা বলার সময় তাকে কার্ডটি দিন। স্থানীয় কিছু প্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি করুন। এ তালিকায় থাকতে পারে বিউটি পারলার, স্পা, সেলুন, ক্লিনিক, হাসপাতাল, রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি। তাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখুন। নিজেকে ও নিজের সেবা সম্পর্কে সবাইকে ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করুন। অন্যান্য বড় ও বাণিজ্যিক ক্লিনিং প্রতিষ্ঠানে না গিয়ে কেন আপনার সেবা  নেবে জনগণ, সে সম্পর্কে ধারণা দেন। বড় প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সেবার মধ্যে জ্বালানি, প্রসেসিং, ভাড়া প্রভৃতি খরচ অন্তর্ভুক্ত করে থাকে। আপনার সেবা থেকে এসব খরচ আপাতত বাদ দিতে পারেন। প্রথমদিকে পরিবহন খরচও নিজে চালিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করুন।

নির্দিষ্ট সময় কাপড় সরবরাহের ওপর নজর দেবেন। অর্ডারি কাপড় সময়মতো ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করুন। চাইলে কাস্টমারদের ডেটাবেজও তৈরি করতে পারেন। সেখানে ক্লায়েন্টের নাম-ঠিকানা, পেমেন্ট, বিল-ভাউচার, ব্যয়, পরিবহন খরচ ইত্যাদির রেকর্ড রাখা উচিত। এতে ক্রেতাদের সঙ্গে আস্থা ও নির্ভরতা তৈরি হবে।

টাকা প্রদানের বিষয়টি কেমন হবে? প্রি-পেইড, নাকি পোস্টপেইড? ক্যাশ অথবা চেক কিংবা ক্রেডিট কার্ড? আপনার সুবিধা অনুযায়ী একটা পেমেন্টনীতি চালু করেন। অবশ্যই তা ব্যবসা শুরুর আগে। অনবরত ব্যবসা নিয়ে কথা বলার চেষ্টা চালিয়ে যান। কেননা অনলাইন ব্যবসায় নেটওয়ার্কিং গুরুত্বপূর্ণ। কে জানে হয়তো আপনার সেবা পেতেই মুখিয়ে ছিল আশপাশের লোকজন।

সবশেষে ধৈর্য ধরুন। একদিনে লাভের আশায় বসে থাকবেন না। ব্যবসাটিকে বাড়তে দিন। হেলোলন্ড্রিডটকমবিডি (HelloLaundry.com.bd) )নামে দেশে এক অনলাইনভিত্তিক লন্ড্রিসেবা চালু হয়েছে। তাদের সেবাটি বিশ্বমানের। তাদের লন্ড্রিসেবা পেতে ক্লিক করুন ওয়েবসাইটে অথবা কল করুন ০৯৬১৩২৩৩৩৩২ নম্বরে।