দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

বিদেশি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানও পাবে প্রণোদনার ঋণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে দেশীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি বিদেশি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানকেও ঋণ দেওয়ার সুযোগ দিল বাংলাদেশ ব্যাংক। করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত ও রপ্তানি বাণিজ্যে জড়িত শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো সহায়তা দেওয়ার উদ্দেশ্যে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করা হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা শেয়ার বিজকে জানান, বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের প্রতিষ্ঠানগুলো দেশের ব্যাংক থেকে কোনো ঋণ সুবিধা পায় না। এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় বিতরণকৃত ঋণ পাওয়ার সুবিধা করে দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এ অঞ্চলগুলোতে ‘এ’ টাইপ বলতে সম্পূর্ণ বিদেশি মালিকানাধীন, ‘বি’ টাইপ বলতে জয়েন্ট ভেঞ্চার ও ‘সি’ টাইপ বলতে সম্পূর্ণ দেশি প্রতিষ্ঠানকে বোঝায়।

বাংলাদেশে কার্যরত সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো ওই সার্কুলারে জানানো হয়, নভেল করোনাভাইরাসের কারণে রপ্তানি বাণিজ্যে জড়িত প্রতিষ্ঠানসহ সামগ্রিকভাবে দেশে কার্যরত শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় দেশীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি বিদেশি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানগুলোর আর্থিক সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে উক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর উৎপাদন ও কর্মসংস্থান অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে এ মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে যে, বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজের সুবিধাগুলো বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা) এবং বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষতে অবস্থিত ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ টাইপ শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। এক্ষেত্রে প্রণোদনার অর্থ বেজা, বেপজা, হাইটেক পার্কে অবস্থিত ‘এ’ টাইপ শিল্পপ্রতিষ্ঠানের ঋণ হিসেবে আকলনের নিমিত্ত সাধারণ প্রাধিকার জ্ঞাপন করা হলো। আলোচ্য প্রণোদনা প্যাকেজগুলোর আওতায় সুবিধাপ্রাপ্তির ক্ষেত্রে এর আগে জারিকৃত নির্দেশনাগুলো পরিপালনীয় হবে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..