সম্পাদকীয়

বিদ্যুৎ বিতরণে দিল্লির পদ্ধতি অনুসরণীয়

চলতি শতাব্দীর শুরুতেও বিদ্যুৎ নিয়ে বেহাল দশার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে আমাদের। তবে বর্তমানে সে পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে অনেক। লোডশেডিং কমার পাশাপাশি বিদ্যুৎ সেবার আওতা বেড়েছে। অবশ্য বাড়তি উৎপাদন ব্যয়ের পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বিপুল অর্থ ভর্তুকি দিতে হচ্ছে। এছাড়া নি¤œ আয়ের বিপুলসংখ্যক মানুষের এখনও বিদ্যুৎসেবা পেতে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। তাদের বিদ্যুতের সুবিধা দিতে দিল্লি সরকারের পদ্ধতি অনুসরণীয়। সেখানে ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিল ফ্রি করে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশেও এমন সুবিধা দিলে নিম্ন আয়ের মানুষ স্বল্প ব্যয়ে বিদ্যুৎ পাওয়ার পাশাপাশি সাশ্রয়ের সুযোগ তৈরি হবে বলে মনে করি।
গতকালের দৈনিক শেয়ার বিজে ‘দিল্লিতে ২০০ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিল ফ্রি’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। এতে বলা হয়, ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির বাসিন্দাদের জন্য বিনা মূল্যে বিদ্যুতের ঘোষণা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সে অনুযায়ী দিল্লির বাসিন্দারা যদি মাসে ২০০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার করেন, তাহলে কোনো বিল দিতে হবে না। এছাড়া বিদ্যুৎ ব্যবহার বেশি হলেও বিলে ছাড় পাবেন গ্রাহকরা। বিদ্যুৎ বিল ২০১ থেকে ৪০০ ইউনিটের মধ্যে থাকলে ইউনিটপ্রতি বিল হবে পুরোনো হারের অর্ধেক। বাকি ৫০ শতাংশ ভর্তুকি দেবে দিল্লি রাজ্য সরকার। সিদ্ধান্তটি ইতিবাচক, জনবান্ধব এবং অনুকরণীয় বৈকি।
এ সিদ্ধান্তকে ঐতিহাসিক পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। এর ফলে বিদ্যুতের বিল যাদের কোনো মাসেই ২০০ ইউনিটের বেশি হয় না, তাদের বাড়িতে কোনো বিদ্যুতের বিল পাঠানো হবে না। সিদ্ধান্তটি ঐতিহাসিক তাতে কোনো সন্দেহ নেই। এখন এ ধরনের সিদ্ধান্ত আমাদের দেশেও নেওয়া যায় কি না, তা গুরুত্বের সঙ্গে ভেবে দেখতে হবে। তবে দেশের বিপুলসংখ্যক মানুষ গরিব কিংবা মধ্যবিত্ত হওয়ায় ২০০ ইউনিটের নিচে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেশি। সেক্ষেত্রে অন্তত ১০০ কিংবা ৫০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার ফ্রি করে দেওয়ার বিষয়টি ভেবে দেখা যেতে পারে। এতে কম বিদ্যুৎ ব্যবহার করার প্রবণতার পাশাপাশি নিম্ন আয়ের মানুষ উপকৃত ও সুবিধাভোগী হবেন।
অবশ্য আমাদের বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থায় ব্যাপক সমস্যা রয়ে গেছে। কয়লার মতো পরিবেশ ধ্বংসকারী পদ্ধতি প্রচলিত রয়েছে। এছাড়া বাড়তি উৎপাদন মূল্যের কারণে সরকারকে বিপুল পরিমাণ অর্থ ভর্তুকি দিতে হচ্ছে। সরকারি অন্যান্য দফতরের মতো বিদ্যুৎ খাতেও ব্যাপক অনিয়ম-দুর্নীতির নজির রয়েছে। এসব সমস্যা দূর করে সাশ্রয়ী উৎপাদন পন্থা গ্রহণ করতে পারলে দিল্লির মতো এমন জনবান্ধব সিদ্ধান্ত গ্রহণ সম্ভব হবে বলে আমরা মনে করি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..