প্রথম পাতা বাজার বিশ্লেষণ

বিমা ছাড়া সব খাতেই বড় দরপতন

রুবাইয়াত রিক্তা: আগেরদিন অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে স্টেকহোল্ডারদের বৈঠকের খবরে বাজার কিছুটা ইতিবাচক হলেও গতকাল ফের আগের অবস্থানে চলে যায়। গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ৬৭ শতাংশ কোম্পানি দর হারিয়েছে। দর বেড়েছে মাত্র ২০ শতাংশ কোম্পানির। লেনদেন বেড়ে ৪০০ কোটি টাকা হলেও সব খাতেই ছিল বিক্রির চাপ। লেনদেন কমলেও বিমা খাতে তুলনামূলক বেশি কোম্পানির দর বেড়েছে। বাকি সব খাতে ছিল দরপতনের আধিক্য। গতকালও ডিএসইর মূল লেনদেন ওষুধ ও রসায়ন এবং প্রকৌশল খাতে সীমাবদ্ধ ছিল। এছাড়া বস্ত্র খাতের লেনদেন অপরিবর্তিত ছিল।
এক শতাংশ বেড়ে প্রকৌশল খাতে লেনদেন হয় ২৩ শতাংশ বা ৯৬ কোটি টাকা। এ খাতে ৭২ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। তবে সরকারি কোম্পানি ন্যাশনাল টিউবসের ২৮ কোটি টাকা লেনদেনের পাশাপাশি দর বেড়েছে ১৪ টাকা ৯০ পয়সা। কোম্পানিটি দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে। এছাড়া মুন্নু জুট স্টাফলার্সের সাড়ে ১৯ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দরপতন হয় ১২১ টাকা ৩০ পয়সা। এছাড়া কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজের দর সাত দশমিক ৫৬ শতাংশ বেড়েছে। তিন শতাংশ বেড়ে ওষুধ ও রসায়ন খাতে লেনদেন হয় ১৯ শতাংশ। এ খাতে ৭৫ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। স্কয়ার ফার্মার ১২ কোটি ৩৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ছয় টাকা ৪০ পয়সা। জেএমআই সিরিঞ্জের ১২ কোটি ৩০ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ৩৮ টাকা। বীকন ফার্মার সোয়া ৯ কোটি টাকা লেনদেন হয়, দরপতন হয় ৩০ পয়সা। অন্যদিকে সাড়ে চার শতাংশ বেড়ে সালভো কেমিক্যাল দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে। বস্ত্র খাতে লেনদেন হয় ১০ শতাংশ। এ খাতে ৫৯ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। স্টাইল ক্রাফটের সোয়া ১১ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দরপতন হয় ৫২ টাকা ৪০ পয়সা। সাড়ে সাত শতাংশ বেড়ে এমএল ডায়িং দরবৃদ্ধিতে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল। আর কোনো খাতেই উল্লেখযোগ্য লেনদেন হয়নি। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ৬৮ শতাংশ কোম্পানির দরপতন হয়। ইউনাইটেড পাওয়ারের প্রায় ১০ কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১২ টাকা ২০ পয়সা। কোম্পানিটি দরবৃদ্ধিতে সপ্তম অবস্থানে উঠে আসে। বিমা খাতে ৪৯ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে উঠে আসে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, প্রভাতি ইন্স্যুরেন্স ও রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি। খাদ্য খাতে একমাত্র বিএটিবিসির দর ১৪ টাকা ২০ পয়সা বেড়েছে। লেনদেন হয় সাড়ে ১৩ কোটি টাকা। কোম্পানিটি লেনদেন ও দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশের মধ্যে অবস্থান করে। ব্যাংক খাতে ৩০ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। ব্যাংক এশিয়া দরবৃদ্ধির শীর্ষ দশে উঠে আসে। ছোট খাতগুলোর মধ্যে পাট এবং কাগজ ও প্রকাশনা খাত শতভাগ নেতিবাচক ছিল। বাকি খাতগুলোতে দু-একটি করে কোম্পানির দর বেড়েছে।

সর্বশেষ..