দিনের খবর সারা বাংলা

বিয়ানীবাজারের ‘ডেঞ্জারজোন পোস্ট অফিস প্রাঙ্গণ!

রেজাউল হক, সিলেট : নতুন এক ডেঞ্জারজোনের কাছে তটস্থ সিলেটের বিয়ানীবাজার পৌরবাসী। রাত ঘনিয়ে এলেই সেখানে জমে ওঠে টিনএজ অপরাধীদের আড্ডা। তারা সেখানে ধূমপান করে, কেউ আবার নেশার ঘোরে চক্কর দেয়। কেউ মোবাইল হাতে প্রিয়জনের সঙ্গে কথায় মশগুল হয়ে ওঠে। ক্রমেই এ ডেঞ্জার জোনে উপস্থিতির হার বাড়ছে। এ নিয়ে উদ্বিগ্ন পৌরবাসী। বিশেষ করে স্থানীয় ব্যবসায়ীরাও আতঙ্কিত।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, পোস্ট অফিস প্রাঙ্গণে সন্ধ্যা নেমে আঁধার হলেই ২০-২৫ বছর বয়সী তরুণদের ভিড় জমতে থাকে। তাদের পিঠে থাকে ব্যাগ ঝুলানো। হাতে মোবাইল, কানে এয়ারফোন নিয়ে জমতে থাকে আড্ডা। প্রায়শই শোনা যায় অশ্লীল কথাবার্তা। সমবেত তরুণরা দলবেঁধে হৈ-হুলোড় করে। কারো হাতে সিগারেট, কেউ কোমল পানীয় আবার কেউ কাশির ওষুধ পান করে আড্ডাস্থল জমানোর চেষ্টা করে।

অথচ পোস্ট অফিস প্রাঙ্গণটি পৌরশহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থিত। এর অদূরে একাধিক বিপণিবিতান, মসজিদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সাব-রেজিস্টার অফিস ও বাসাবাড়িও রয়েছে। কেউ তাদের বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহসও দেখান। এ প্রাঙ্গণের ওপর দিয়ে কলেজ রোডে যাতায়াত করেন বহু সাধারণ মানুষ। বেশকিছু দন থেকে সন্ধ্যার পর সাধারণ পথচারীরাও আর এ পথে পা-বাড়ান না টিনেজ অপরাধীদের কারণে।

একটি সূত্র জানিয়েছে, পোস্ট অফিস প্রাঙ্গণেই রয়েছে একাধিক ছোট ঝোপঝাঁড়। এসব ঝোপঝাঁড়ে রাখা থাকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র, যেগুলো বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ব্যবহƒত হয়।

বিয়ানীবাজার পোস্ট অফিসের পোস্ট মাস্টার হরিমোহন সিং বলেন, ‘এখনকার ছেলেদের সঙ্গে কথা বলা ঠিক নয়। কারণ তাদের মেজাজ সবসময় গরম থাকে। তাছাড়া আমি বাইরের লোক, এসব বিষয় নিয়ে অযথা ঝামেলায় জড়াতে চাই না।’ তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন বখাটেদের চিৎকার-চেঁচামেচি শুনি, যা আমার কাছেও খারাপ লাগে।’

পোস্ট অফিস-সংলগ্ন একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক জানান, সন্ধ্যার পর বখাটেদের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ থাকেন তারা। এ সময়ে সাধারণত কাস্টমার, পথচারীরা ওই এলাকায় আসতে চান না। 

এ বিষয়ে বিয়ানীবাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাহিদুল হক বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা ছিল না। তবে এখন থেকে এসব স্থানে আমরা নিয়মিত টহল দেব। আমরা এলাকার মানুষকে শান্তিতে রাখতে চাই।’ কোথাও কোনো ধরনের বখাটেপনা সহ্য করা হবে না বলে জানান তিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..