বিশ্ব বাণিজ্য

বিশ্ববাজারে কমতে শুরু করেছে স্বর্ণের দাম্

বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনে আশাবাদ

শেয়ার বিজ ডেস্ক:যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চলমান বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা শুরু হওয়ার ইঙ্গিতে বিশ্ববাজারে কমতে শুরু করেছে স্বর্ণের দাম। গতকাল শুক্রবার মূল্যবান এ ধাতুটির দাম দ্বিতীয় দিনের মতো কমেছে। গত পাঁচ সপ্তাহ পর প্রথম সাপ্তাহিক দরপতন হলো স্বর্ণের। তবে টানা চার মাসের মতো মাসিক হিসাবে দর বেড়েছে ধাতুটির। খবর: বিজনেস রেকর্ডার।
যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যযুদ্ধে নতুন মাত্রা এবং হংকংয়ে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা, আর্জেন্টিনার মুদ্রা পেসোর দরপতনসহ বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার আশঙ্কায় বিনিয়োগকারীরা স্বর্ণে বিনিয়োগে ঝুঁকছিল। এতে চাহিদায় বাড়তি চাপ পড়ায় মূল্যবান ধাতুটির দামে চাঙা ভাব বজায় ছিল। আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম বেড়ে ছয় বছরের বেশি সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছেছিল।
যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে গতকাল স্বর্ণের দাম আগের কার্যদিবসের তুলনায় গড়ে দশমিক দুই শতাংশ কমেছে। কার্যদিবসের শুরুতে মূল্যবান ধাতুটির স্পটমূল্য আগের কার্যদিবসের তুলনায় দশমিক দুই শতাংশ কমে প্রতি আউন্স এক হাজার ৫২৪ ডলার ৩৩ সেন্টে হাতবদল হয়। এর আগের কার্যদিবসে দাম কমে এক শতাংশের বেশি। এর আগে ছয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে অবস্থান করে স্বর্ণের দাম। একই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ভবিষ্যৎ সরবরাহ চুক্তিতে প্রতি আউন্স স্বর্ণ এক হাজার ৫৩৩ ডলার ৫০ সেন্টে বেচাকেনা হয়।
সাধারণত ডলারের মান যখন দুর্বল হয়ে ওঠে, তখন স্বর্ণসহ নির্ধারিত বিভিন্ন ধাতুতে বিনিয়োগ করায় নিরাপদ বোধ করেন বিনিয়োগকারীরা। ফলে ধাতুটির দাম বাড়ে। আর ডলার শক্ত অবস্থানে থাকলে স্বর্ণের দাম কমে। তাছাড়া রাজনৈতিক বা আর্থিক কোনো অস্থিরতা দেখা দিলেও এ পণ্যটির দর বাড়ে। কারণ এ সময় এ খাতে বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়ে যায়। স্বর্ণকে তখন মানুষ নিরাপদ বিনিয়োগ ভাবে।
গত বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বাণিজ্য ইস্যুতে চীনের সঙ্গে আলোচনার ইঙ্গিত দিয়েছেন। চীনের বাণিজ্যমন্ত্রীও বলেছেন, আগামী সেপ্টেম্বরে আলোচনায় বসার বিষয়ে দুই দেশের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র শুল্ক যাতে না বাড়ায়, সেটা নিশ্চিত হওয়াও গুরুত্বপূর্ণ।
আলোচনার ইঙ্গিতে মার্কিন বন্ড বাজার গত বৃহস্পতিবার ঊর্ধ্বমুখী ছিল। ৩০ বছর মেয়াদি বন্ড রেকর্ড সর্বনিম্নে পৌঁছেছিল, সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে। এছাড়া গতকাল এশিয়ার ইকুয়িটি বাজার এক সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছায়। বাজারের এ ইতিবাচক প্রবণতাই মূলত স্বর্ণের দাম কমাতে ভূমিকা রেখেছে।
ব্রিটেনভিত্তিক বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইজি মার্কেটের বিশ্লেষক কেইল রোড্ডা বলেন, গতকাল বাণিজ্যযুদ্ধ নিরসনের আশাবাদে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব দেখা গেছে। বন্ড মার্কেটও ছিল ঊর্ধ্বমুখী। এ কারণে ঝুঁকি কিছুটা কমেছে বলে মনে করা হচ্ছে। তার প্রভাব পড়তে শুরু করেছে স্বর্ণের দামে।

সর্বশেষ..