বিশ্ব বাণিজ্য

বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমেছে

শেয়ার বিজ ডেস্ক : অপ্রত্যাশিতভাবে গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রে চাকরির ক্ষেত্র বৃদ্ধি পাওয়ায় এর প্রভাব পড়েছে আন্তর্জাতিক বাজারে। গত শুক্রবার বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমেছে দুই দশমিক ছয় শতাংশ। এদিন ভারতের বাজারেও মূল্যবান এ ধাতুটির দাম কমেছে। খবর: রয়টার্স।

শুক্রবার বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হয়েছে এক হাজার ৬৮৩ ডলারে, যা আগের কর্মদিবসের চেয়ে ৪৪ ডলার ৪০ সেন্ট বা দুই দশমিক ছয় শতাংশ কম। এটি ২ মের পর সর্বনি¤œ দাম। সাপ্তাহিক হিসাবে স্বর্ণের দাম কমেছে প্রায় তিন দশমিক ৯ শতাংশ।

এর পাশাপাশি রুপার দামও কমেছে পাঁচ দশমিক পাঁচ শতাংশ। বিশ্ববাজারের পাশাপাশি স্বর্ণের দাম কমেছে ভারতেও। শুক্রবার ভারতে ১০ গ্রাম স্বর্ণের দাম ৪৬ হাজার ৩৫০ রুপিতে নেমে যায়। এদিন মূল্যবান এ ধাতুটির দর প্রায় এক শতাংশ কমেছে।

সাধারণত মন্দার সময় স্বর্ণের দাম বাড়তে থাকে, কারণ তখন বিনিয়োগকারীরা নিরাপদ হিসেবে স্বর্ণ কিনে মজুত করে রাখে। আর অর্থনীতি চাঙা হলে স্বর্ণের দাম কমে, কারণ তখন বিনিয়োগকারীরা স্বর্ণ ছেড়ে পুঁজিবাজারের দিকে ঝুঁকে পড়ে।

আশঙ্কাজনক অবনমনের পর গত মে মাসে হঠাৎ করেই অপ্রত্যাশিতভাবে উন্নতি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের শ্রমবাজারের। এপ্রিলে দেশটিতে যেখানে বেকারত্বের হার ছিল ১৪ দশমিক সাত শতাংশ, সেখানে মে মাসে তা নেমে ১৩ দশমিক তিন শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। মূলত দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ধীরে ধীরে অর্থনৈতিক কার্যক্রম শুরু হওয়ায় চাকরিতে নিয়োগ পেতে শুরু করেছেন মার্কিন নাগরিকরা। এ অবস্থায় দেশটির অর্থনীতি সংকটাবস্থা কাটিয়ে ফের স্বরূপে ফিরছে বলে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন খোদ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সর্বোপরি চাকরিবাজারের এ উন্নতিতে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে  বৈশ্বিক মহামারির প্রভাব যতটা তীব্র হবে বলে মনে করা হচ্ছিল, বাস্তবে পরিস্থিতি ততটা ভয়াবহ হবে না।

মার্কিন শ্রম বিভাগের তথ্য অনুযায়ী ধারণা করা হচ্ছিল, যুক্তরাষ্ট্রকে মে মাসে আরও একবার বাজে বেকারত্ব হারের সম্মুখীন হতে হবে। বিশ্লেষকরা  ভেবেছিলেন, মাসটিতে বেকারত্বের হার বেড়ে ২০ শতাংশ বা তারও বেশি হতে পারে। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে আশ্চর্যজনকভাবে এ সময়ে উল্টো নতুন করে চাকরি সৃষ্টি হয়েছে ২৫ লাখ। এ উন্নতির মূলে রয়েছে দেশজুড়ে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ফের কার্যক্রমে ফেরা। বিশেষ করে খাদ্য, নির্মাণ ও স্বাস্থ্য খাতের চাকরিদাতারা কার্যক্রমে ফেরার পাশাপাশি কর্মীদের কাজে ডাকছেন। একই সঙ্গে নতুন করে কর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে শিক্ষা ও খুচরা বিক্রি খাতেও।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..