বিশ্ব বাণিজ্য বিশ্ব সংবাদ

বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম ৮ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে থাকায় বিনিয়োগকারীদের মধ্যে উদ্বেগ বাড়ছে। তারা আস্থা হারাচ্ছেন। বৈশ্বিক পুঁজিবাজারের প্রধান সূচকগুলো নি¤œমুখী প্রবণায় রয়েছে। এর সুযোগে বাড়ছে স্বর্ণের দাম। গতকাল বুধবার গত আট বছরের মধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারে সর্বোচ্চ ছিল স্বর্ণের দাম। খবর: রয়টার্স।

করোনার প্রকোপে অর্থনীতি ভেঙে পড়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি রাজ্য রেকর্ড সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে। লাতিন আমেরিকায় মৃত্যের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এমন পরিস্থিতিতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন মার্কিন পর্যটকদের জন্য বিধিনিষেধ আরোপের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এসব কারণে ডলারের বিনিময় মূল্য কমতে শুরু করেছে। আর তাতেই বাড়ছে স্বর্ণের দাম। গতকাল বুধবার দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম পৌঁছায় এক হাজার ৭৭০ ডলার ৯২ সেন্টে। লেনদেনের এক পর্যায়ে তা এক হাজার ৭৭৩ ডলারে পৌঁছায়, যা ২০১২ সালের অক্টোবরের পর সর্বোচ্চ দাম।

বিশ্ব পুঁজিবাজার গতকাল দশমিক তিন শতাংশ কমেছে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই নি¤œমুখী প্রবণতায় রয়েছে এ পুঁজিবাজার। এর আগে মার্চের সর্বোচ্চ পতন থেকে ৪০ শতাংশ বেড়েছিল বাজার, আশা ছিল করোনার সবচেয়ে খারাপ সময় অতিক্রম করে এসেছে বিশ্ব। কিন্তু বাস্তবে তার উল্টো হলো।  

নিরাপদ বিনিয়োগের উৎস হিসেবে স্বর্ণের বাজার বিনিয়োগকারীদের মনোযোগ আকর্ষণ করায় বেচাকেনা বেড়ে স্বর্ণের বাজার চাঙ্গা হচ্ছে বলে জানান খাতসংশ্লিষ্টরা। সাধারণত ডলারের মান যখন দুর্বল হয়ে ওঠে, তখন স্বর্ণসহ নির্ধারিত বিভিন্ন ধাতুতে বিনিয়োগ করায় নিরাপদ বোধ করেন বিনিয়োগকারীরা। ফলে ধাতুটির দাম বাড়ে। আর ডলার শক্ত অবস্থানে থাকলে স্বর্ণের দাম কমে। তাছাড়া রাজনৈতিক বা আর্থিক কোনো অস্থিরতা দেখা দিলেও এ পণ্যটির দর বাড়ে, কারণ এ সময় এ খাতে বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়ে যায়। স্বর্ণকে তখন মানুষ নিরাপদ বিনিয়োগ ভাবে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কমোডিটি ব্রোকার ব্লু লাইন ফিউচার্সেও প্রধান বাজার কৌশলবিদ ফিলিপ স্ট্রেইবল বলেন, বৈশ্বিক অর্থনীতিতে মন্থরতা নেমে আসার আশঙ্কা থেকে বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজার ও মুদ্রাবাজারে অর্থলগ্নিতে ভরসা পাচ্ছেন না। স্বাভাবিকভাবে তারা স্বর্ণের প্রতি ঝুঁকেছেন। এ পরিস্থিতি মূল্যবান ধাতুটির বাজার পরিস্থিতি চাঙ্গা করে তুলেছে।

তিনি আরও বলেন, চাহিদায় চাঙ্গা ভাব বজায় থাকলে আগামী দিনগুলোয় মূল্যবান ধাতুটির দাম আরও বেড়ে যেতে পারে।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বিনিয়োগ ব্যাংক ইউবিএসের বাজার কৌশলবিদ জনি তেভেজ বলেন, স্বর্ণের দাম দ্রুত বাড়ছে। নভেল করোনাভাইরাসের কারণে চীনসহ বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্থরতা দীর্ঘায়িত হলে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম বর্তমানের তুলনায় আরও বেড়ে যাওয়ার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..