প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট সিঙ্গাপুরের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট এশিয়ার এক ছোট্ট দেশ সিঙ্গাপুরের। ফলে এতদিন ইউরোপীয় দেশগুলো শক্তিশালী পাসপোর্ট দাবি করলেও হার মানতে হলো ইউরোপের মাতব্বরদের। সম্প্রতি জাতিসংঘের ১৯৩টি সদস্য দেশ ও ছটি অঞ্চলের মধ্যে সমীক্ষা চালিয়ে পাসপোর্ট শক্তির নিরিখে একটি নতুন তালিকা প্রকাশ করে  গ্লোবাল ফিন্যান্সিয়াল ‘আর্টন ক্যাপিটাল’ নামের একটি সংস্থা। তাতেই উঠে এসেছে এ তথ্য। খবর এনডিটিভি।

গত এক দশক এ তালিকায় আধিপত্য করে আসছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ। এবার প্রথম কোনো এশিয়ার দেশ এ মাপকাঠিতে সেরা নির্বাচিত হলো। সিঙ্গাপুরবাসীদের জন্য প্যারাগুয়ে ভিসার বিধিনিষেধ তুলে দেওয়ামাত্র এক নম্বরে উঠে এলো সিঙ্গাপুর।

‘গেøাবাল পাসপোর্ট পাওয়ার র‌্যাংক ২০১৭’ শীর্ষক জরিপে দেখা যায়, ১৫৯ ভিসা-ফ্রি স্কোর পেয়ে সিঙ্গাপুর সেরা তালিকায় স্থান পায়। কোনো দেশের পাসপোর্টের শক্তি কত তা মাপা হয় এ ভিসা-ফ্রি স্কোর দিয়ে। এর মানে কোনো দেশের পাসপোর্ট দিয়ে কতগুলো বিদেশে বিনা ভিসায় ঢোকা যায়, বা কতগুলো বিদেশে ঢোকামাত্রই ভিসা পাওয়া যায়।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে জায়গা পায় দু’বছর ধরে এ তালিকার শীর্ষে থাকা জার্মানি। এশিয়ার দেশ দক্ষিণ কোরিয়া ও ইউরোপের দেশ সুইডেন যৌথভাবে তৃতীয় স্থান দখল করে।

আর ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর আমেরিকার র‌্যাংকিংয়ের অবনতি হয়েছে। কয়েক দিন আগেই তুরস্ক ও মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র মার্কিন পাসপোর্টধারীদের সঙ্গে তাদের ভিসাবিহীন সম্পর্ক বন্ধ করে দেয়। এরই প্রভাবে পিছিয়ে গেছে আমেরিকার র‌্যাংকিং। ১৫৪ স্কোর পেয়ে কয়েকটি দেশের সঙ্গে যৌথভাবে ষষ্ঠ স্থানে অবস্থান করছে যুক্তরাষ্ট্র।

গত বছরের ৭৮ থেকে তিন ধাপ এগিয়ে তালিকার ৭৫-এ রয়েছে ভারত। এখন ভারতের ভিসা-ফ্রি স্কোর ৫১। আর তালিকায় ৩৫ স্কোর পেয়ে ইয়েমেনের সঙ্গে যৌথভাবে ৯০তম বাংলাদেশ। ২২ স্কোর করে ৯৪তম অবস্থান নিয়ে তালিকার শেষে রয়েছে এশিয়ার যুদ্ধবিদ্ধস্ত দেশ আফগানিস্তান। ৯৩ নম্বরে যৌথভাবে পাকিস্তান ও ইরাক। ৯২-এ সিরিয়া, ৯১-এ সোমালিয়া। ৮৭তম স্থান পেয়েছে কিম জং উনের উত্তর কোরিয়া।

আর্টন ক্যাপিটালের ব্যবস্থাপক ফিলিপ মে বলেন, প্রথমবারের মতো কোনো এশিয়ার দেশ এ তালিকায় প্রথম স্থান দখল করল। তিনি বলেন, এটা সিঙ্গাপুরের অন্তর্ভুক্তিমূলক ক‚টনৈতিক সম্পর্ক ও কার্যকরী বিদেশনীতির ফলে সম্ভব হয়েছে, যা দেশটির জন্য বড় একটি অর্জন।