প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বিশ্ব অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি কমার পূর্বাভাস ওইসিডির

শেয়ার বিজ ডেস্ক : উচ্চ সুদহার, মূল্যস্ফীতি ও ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে চলতি বছর বিশ্ব অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি কমার পূর্বাভাস দিয়েছে উন্নত দেশগুলোর সংগঠন অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থা (ওইসিডি)। খবর: আল জাজিরা।

গতকাল মঙ্গলবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমন পূর্বাভাস দিয়েছে প্যারিসভিত্তিক সংস্থাটি। সংস্থাটি বলছে, চলতি বছর বিশ্ব অর্থনীতির মোট দেশজ উৎপাদনের প্রবৃদ্ধি (জিডিপি) ৩ দশমিক ১ শতাংশ, গত বছর যা ছিল ৫ দশমিক ৯ শতাংশ। উচ্চ মূল্যস্ফীতির কারণে ২০২৩ সালে প্রবৃদ্ধি কমে দাঁড়াবে ২ দশমিক ২ শতাংশে।

ওইসিডি মহাসচিব ম্যাথিয়াস কোরম্যান এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এটা সত্য, আমরা দুনিয়াজুড়ে মন্দার পূর্বাভাস দিচ্ছি না। তবে এটি খুব চ্যালেঞ্জিং একটি দৃষ্টিভঙ্গি। আমি মনে করি না যে, ২ দশমিক ২ শতাংশ বৈশ্বিক প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস কারও জন্যই স্বস্তিদায়ক হবে।

ওইসিডির সদস্য দেশ ৩৮টি। দেশগুলো আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও সমৃদ্ধি নিয়ে কাজ করে। সংস্থাটির পরিসংখ্যান অনুসারে, ইউক্রেনে রাশিয়ার বিশেষ সামরিক অভিযান কেন্দ্র করে তেল ও গ্যাসের দাম বেড়েছে। এজন্য ওইসিডির সদস্য দেশগুলোকে তাদের ইকোনমিক আউটপুটের ১৮ শতাংশ জ্বালানিতে ব্যয় করতে হয়েছে। এ কারণে জ্বালানি সংকটে পড়ে বিশ্ব। জ্বালানির উচ্চ দাম বাড়িয়ে দেয় মূল্যস্ফীতি।

মহাসচিব বলেন, অনেক দেশে সরকার সহায়তামূলক পদক্ষেপ নিলেও পরিবারগুলোর প্রকৃত আয় কমেছে। এসব সমস্যা সমাধানে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ বা ফেড নীতি সুদহার বাড়িয়েছে। চলতি বছর তারা ছয়বার বেঞ্চমার্ক হার বাড়িয়েছে।

গত বছর বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রবৃদ্ধি ছিল ৫ দশমিক ৯ শতাংশ। ওইসিডির পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ বছর দেশটির প্রবৃদ্ধি হবে মাত্র ১ দশমিক ৮ শতাংশ। ২০২৩ সালে যা দাঁড়াবে শূন্য দশমিক ৫ শতাংশে, ২০২৪ সালে যা হবে মাত্র এক শতাংশ। অর্থনীতিবিদের আশঙ্কা, আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্র অন্তত একটি মৃদু মন্দায় পড়বে।