বিশ্ব পুঁজিবাজারে সূচকের উন্নতি

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বৈশ্বিক ট্রেজারি বন্ডের দাম পতন এবং প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর শেয়ারে দাম বেড়ে যাওয়ায় নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে বিশ্ব পুঁজিবাজার। স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ব পুঁজিবাজারে সূচক এক মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ বৃদ্ধি পেয়েছে। খবর: রয়টার্স, ব্ল–মবার্গ।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রসহ বৈশ্বিক ভোক্তা মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধি এবং করপোরেট সম্পত্তির চাপে বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে অনাগ্রহী হয়ে ট্রেজারি বন্ডে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করেছে। কভিড-পরবর্তী যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো সুদহার বৃদ্ধির ঈঙ্গিত দেয়। ফলে বন্ডের ভবিষ্যৎ অন্ধকার দেখা দেয়। এ অবস্থায় গতকাল ফেসবুকসহ প্রযুক্তি কোম্পানির শেয়ারের দর বৃদ্ধি পায়। বিশ্ব পুঁজিবাজারে সূচকের উন্নতি হয়।

গতকাল বিশ্ব পূঁজি সূচকে দেখা যায়, ওয়ার্ল£ স্টকে এমএসসিআই সূচক গত ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে এক মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে, যখন যুক্তরাষ্ট্রের স্টক ফিচারসও লন্ডন ট্রেডিংয়ে শুরুতে মুনাফায় ওঠে এবং ইউরোপিয়ান স্টকসও শূন্য দশমিক তিন শতাংশ বৃদ্ধি পায়। 

এ বিষয়ে জেএফডি গ্রুপের গবেষণা প্রধান চারালাম্বোস পিসুরোস বলেন, মনে হচ্ছে গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের বড় বড় ব্যাংক তাদের গ্রাহকদের প্রত্যাশার চেয়ে ভালো কিছু করতে সহায়তা করেছে, যা এই সপ্তাহ এবং পরবর্তী মৌসুমে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগে আগ্রহী করে তুলেছে।

বিশ্লেষকদের মতে, সোমবার প্রকাশিত তৃতীয় প্রান্তিকের চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাক্রো ডেটায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কঠোর পদক্ষেপকে বিরত রাখবে। চীনের প্রকাশিত তথ্যে দেখা যায়, তৃতীয় প্রান্তিকে দেশটিতে শিল্পোৎপাদনে গত এক বছরের মধ্যে শ্লথগতি ছিল। আর সেপ্টেম্বর শেষে যুক্তরাষ্ট্রের চাকরির বাজারে দুর্বল প্রবৃদ্ধি লক্ষ করা গেছে। 

এদিকে ব্ল–মবার্গের এক বিশ্লেষণে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী সরকারি ও করপোরেট ট্রেজারি বন্ডের দাম চলতি বছরে এরই মধ্যে চার দশমিক চার শতাংশ হ্রাস পেয়েছে, যা ২০০৫ সালের পর বছরে সবচেয়ে বড় পতন।

ব্ল–মবার্গের ইন্টেলিজেন্সের পূর্বাভাস অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও যুক্তরাজ্যের ট্রেজারি বন্ড বাজার চলতি বছরের সেপ্টেম্বর থেকে অন্তত ১২ মাস অর্থ হারাতে পারে। কারণ  বন্ডের কুপনগুলো ক্রমবর্ধমান ক্ষতির বিপরীতে সামান্য অর্থই সরবরাহ করতে পারবে।

বৈশ্বিক জ্বালানি খরচ বৃদ্ধি, সরবরাহ শৃঙ্খলে বিপর্যয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কভিডের প্রণোদনা প্যাকেজ প্রত্যাহার ইস্যুতে ভোক্তা মূল্যস্ফীতি আরও বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করা হয়।

ব্ল–মবার্গের তথ্য অনুসারে, চলতি বছর যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি বন্ডে বিনিয়োগকারীরা দুই দশমিক সাত শতাংশ, যুক্তরাজ্যে সাত দশমিক পাঁচ শতাংশ, ইউরোপে আট শতাংশ এবং জাপানে ৯ দশমিক আট শতাংশ হারিয়েছেন।

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোয় জ্বালানি তেলের দাম চোখে পড়ার মতো বৃদ্ধি পেয়েছে। একই সময় বৈশ্বিক সরবরাহকারী বন্ডের দামে হ্রাস-বৃদ্ধি ঘটে, যা বিনিয়োগকারীদের ঝুঁকিপূর্ণ সম্পদের তুলনায় প্রযুক্তিভিত্তিক শেয়ার সূচক বাড়াতে সাহায্য করেছে।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ১০ বছর মেয়াদি ট্রেজারি বন্ডের দাম ছয় বিপিসি কমে তিন সপ্তাহের মধ্যে সর্বনি¤œ স্তরে নেমে গেছে।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ওয়াল স্ট্রিটে রাতারাতি অ্যাপল, ফেসবুক ও মাইক্রোসফটসহ প্রায় সব প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার শক্তিশালী ছিল। অন্যদিকে স্টার্লিং, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের ডলার গ্রিনব্যাকে এশিয়ান সেশনে এক মাসের মধ্যে উচ্চতায় পৌঁছেছে। আর যুক্তরাষ্ট্রের ডলারের বিপরীতে ইউরো দুই সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চ স্তরে পৌঁছেছে।

এদিকে বেঞ্চমার্কেটে জ্বালানি তেলের দাম ব্রেন্ট অয়েল শূন্য দশমিক ২৮ শতাংশ বেড়ে ব্যারেলপ্রতি ৮৪ দশমিক ৫৬ ডলার এবং ইউএস ক্রুড অয়েল শূন্য দশমিক ৪৪ শতাংশ বেড়ে ব্যারেলপ্রতি ৮২ দশমিক ৮০ ডলারে পৌঁছেছে, যা গত দুই মাসে এক-তৃতীয়াংশ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং স্বর্ণের দাম শূন্য দশমিক ছয় শতাংশ বেড়ে আউন্সপ্রতি এক হাজার ৭৭৫ দশমিক দুই ডলারে পৌঁছেছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন   ❑ পড়েছেন  ৯১  জন  

সর্বশেষ..