দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা

বুলবুলের প্রভাবে চট্টগ্রাম বন্দরে পণ্য খালাস বন্ধ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকা এবং আবহাওয়া অধিদফতরের ৪ নম্বর সংকেতের কারণে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ হয়ে গেছে। গতকাল দুপুরে লাইটার শিপ মালিকদের সংগঠন ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেল (ডব্লিউটিসি) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সেন্টমার্টিনের সঙ্গে টেকনাফের জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে সেন্টমার্টিনে প্রায় এক হাজার ২০০ পর্যটক আটকে পড়েছেন। এছাড়া বান্দরবানে অনুষ্ঠেয় রাসমেলা বাতিল করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব মো. ওমর ফারুক বলেন, আবহাওয়া অধিদফতর ৪ নম্বর সংকেত দেখাতে বলায় বিকালে বন্দর ভবনের সম্মেলন কক্ষে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি সভা আহ্বান করা হয়েছে। এছাড়া মাদার ভেসেলগুলোকে নিরাপদ দূরত্বে সরে যেতে বলা হয়েছে। ৫ নম্বর সংকেত দেখানো হলে আনুষ্ঠানিকভাবে পণ্য খালাস বন্ধ করা হবে। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে লাইটার মালিকরাই বিকাল থেকে পণ্য খালাস বন্ধ রেখেছেন।

উল্লেখ্য, বিদেশ থেকে আমদানি করা গম, ডাল, ক্লিংকারসহ খোলা পণ্যবাহী বড় জাহাজ বেশি ড্রাফটের (জাহাজের পানির নিচের অংশ) কারণে বন্দরের মূল জেটিতে ভিড়তে না পারায় বহির্নোঙরে ছোট জাহাজে (লাইটার শিপ) পণ্য খালাস করে বিভিন্ন নদীবন্দর ও কারখানার ঘাটে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে গতকাল সকাল চট্টগ্রাম বন্দরে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেয়া হলেও সন্ধ্যায় তা বাড়িয়ে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এতে বন্দর কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে পণ্য খালাস বন্ধ করে দেয়।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর কারণে কক্সবাজার উপকূলে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত থাকায় শুক্রবার টেকনাফ-সেন্টমার্টিন সমুদ্রপথে জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। বৃহস্পতিবার ৩ নম্বর সংকেত ঘোষণার পর বিকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আশরাফুল আফসার পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখতে নোটিশ দেন।

এতে সেন্টমার্টিনে প্রায় এক হাজার ২০০ পর্যটক আটকে পড়েছেন বলে জানিয়েছেন সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান নুর আহমদ। তবে তারা নিরাপদ রয়েছেন বলে দাবি করেন তিনি।

ইউপি চেয়ারম্যান জানান, বৃহস্পতিবার বেড়াতে আসা পর্যটকদের অনেকে রাতযাপনের জন্য থেকে গেছেন। হঠাৎ বৈরী আবহাওয়ায় জাহাজ চলাচল বন্ধ হওয়ায় তারা আটকে গেছেন। তিনি বলেন, সেন্টমার্টিন দ্বীপে পাঁচটি সাইক্লোন শেল্টার ও বহুতল কয়েকটি হোটেল রয়েছে। কঠিন দুর্যোগ বা জলোচ্ছ্বাস হলেও আটকে পড়া পর্যটকদের বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। সংকেত বাড়লে আমরা তাদের এসব স্থানে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করব।

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন সমুদ্রপথে চলাচলকারী কেয়ারি সিন্দাবাদ ও কেয়ারি ক্রুজের ইনচার্জ মো. শাহ আলম জানান, সমুদ্রে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত ওঠার পরই শুক্রবার টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে জাহাজ চলাচল স্থগিত করে দেয় প্রশাসন। শুক্রবার সকাল থেকে সংকেত বেড়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। তাই জাহাজ সেন্টমার্টিনের পথে যায়নি।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলের’ প্রভাবে বৈরী আবহাওয়ার কারণে বাগেরহাটের দুবলার চরে হতে যাওয়া রাসমেলা বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার (৯ নভেম্বর) বিকাল থেকে রাসমেলার দর্শনার্থীদের যাত্রা শুরুর সময় নির্ধারিত ছিল। এদিন দুপুর নাগাদ মেলায় যাওয়ার অনুমতির বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত আসার কথা ছিল। তবে সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে গতকাল দুপুরেই রাসমেলা বাতিলের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে বনবিভাগ। রাসমেলা উদ্যাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ বসু শন্তু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। একই সঙ্গে ‘বুলবুলের’ কারণে সুন্দরবনে পর্যটকদের প্রবেশও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. মাহমুদুল হাসান ও পশ্চিম বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বশিরুল আল মামুন জানান, দুবলার চরে রাসমেলার স্থানটি বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের আওতায়। ঘূর্ণিঝড়ের প্রকৃতি, আঘাত হানার সম্ভাব্য সময় ও দুর্যোগের সার্বিক প্রভাব বিবেচনা করে রাসমেলা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রাসমেলা উদ্যাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ বসু শন্তু জানান, পূর্ণিমার দিন শুধু পূজা অনুষ্ঠিত হবে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অপর দিকে শুক্রবার সকালে বাগেরহাট জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা থেকে সুন্দরবন বিভাগকে সব ধরনের পাস-পারমিট বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের পক্ষ থেকে কোনো পাস-পারমিট দেওয়া হবে না বলে নিশ্চিত করা হয়।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মাহমুদুল হাসান জানান, ‘ঘূর্ণিঝড়ের অবস্থান পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। অবস্থা প্রতিকূল হলে দুবলার চরে জেলেদের মাছ ধরার অনুমতি দেওয়া হবে না। এরই মধ্যে বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ »

সর্বশেষ..