সারা বাংলা

বেনাপোল দিয়ে ভারতের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য শুরু

প্রতিনিধি, বেনাপোল: শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে টানা চার দিন ছুটির পর গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে শুরু হয়েছে দু’দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য। বেনাপোল বন্দরের উপপরিচালক (ট্রাফিক) আবদুল জলিল এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, দুর্গাপূজার চার দিন ছুটির পর মঙ্গলবার সকাল থেকে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি পুনরায় শুরু হয়েছে। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ৯৫ ট্রাক মালামাল আমদানি হয়েছে বেনাপোল বন্দর দিয়ে। আর বাংলাদেশ থেকে ২৫ ট্রাক পণ্য রপ্তানি হয়েছে ভারতে। বন্ধের কারণে আটকে থাকা পণ্য যাতে ব্যবসায়ীরা দ্রুত খালাস নিতে পারেন সেজন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, দেশের চলমান ১২টি স্থলবন্দরের মধ্যে সবচেয়ে বড় আর বেশি রাজস্বদাতা বেনাপোল বন্দর। যোগাযোগ-ব্যবস্থা সহজ হওয়ায় দেশে শিল্প কারখানার ৭০ শতাংশ কাঁচামাল এ পথে আমদানি হয়ে থাকে। রাজস্ব আয়ে বাণিজ্যিক দিক দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের পরই বেনাপোল বন্দরের অবস্থান।

প্রতি বছর বেনাপোল বন্দর থেকে সরকারের প্রায় ছয় হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় হয়। আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের সঙ্গে সম্পৃক্ত এ বন্দরে কাস্টমস, বন্দর, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস ও ট্রান্সপোর্টসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে।

জানা যায়, গত ২৩ অক্টোবর সাপ্তাহিক ছুটি ও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুর্গাপূজা উপলক্ষে চার দিন বেনাপোল ও পেট্রাপোল বন্দরের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ ছিল। বেনাপোল কাস্টমস হাউসে প্রতিদিন রাজম্ব আয় হয় ২০ কোটি টাকারও বেশি।

বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার মো. আজিজুর রহমান জানান, চার দিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় আমদানি-রপ্তানি চালু হয়েছে। রাজস্ব আয়ের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সব কর্মকর্তাদের দ্রুত কাজ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..