সারা বাংলা

বেপরোয়া মুন্সীগঞ্জের ইলিশ শিকারিরা

প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ: নিষিদ্ধ সময়ে মুন্সীগঞ্জের পদ্মা ও মেঘনা নদীজুড়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন ইলিশ শিকারিরা। জেলার সদর ও লৌহজং উপজেলায় চলছে ইলিশ শিকারের মহোৎসব। প্রশাসনের কোনো বাধাই মানছেন না জেলেরা।

সরকার মা ইলিশ প্রজনন মৌসুমে গত ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ইলিশ শিকার নিষিদ্ধ করা সত্ত্বেও গত তিন দিন টানা বৃষ্টির কারণে নৌ-পুলিশের ঢিলেঢালা অভিযান চালায়। আর এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে জেলেরা অনেকটা নির্বিঘেœ মা ইলিশ শিকার করেন।

এদিকে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মা ইলিশ সংরক্ষণে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত মাওয়া নৌ-পুলিশের অভিযানে ১২০ জনকে আটক, পাঁচ মণ ইলিশ জব্দ ও ৮০ লাখ মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এ সময় ১০টিরও বেশি নৌকা  ডুবিয়ে দেওয়া হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অসাধু মাছ ব্যবসায়ীরা নদীতে মাছ শিকার করে পারে এসে কেজি প্রতি দুই থেকে ৩০০ টাকা বিক্রি করে আবার চলে যায় মাছ শিকারে। আর ক্রেতা কেউ লাগেজে, কেউ পালিথিন ব্যাগে, কেউ পাতিলে করে নানা কৌশলে গ্রামের ভেতর দিয়ে নিয়ে আসেন শহরে।

অন্যদিকে মুন্সীগঞ্জ মোল্লারচর এলাকায় মা ইলিশ বিক্রিতে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। এলাকাটিতে বসবাসরত বেদে সম্প্রদায়ের কয়েকটি পরিবার জাজিরা বকচর নামক এলাকা থেকে নৌকায় করে প্রতিদিন ইলিশ ক্রয় করে মোল্লারচর এলাকায় এসে বিক্রি করেন। মুন্সীগঞ্জ জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুনীল মণ্ডল জানান, মা ইলিশ নিধনের সঙ্গে জড়িতদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। অভিযান চলমান রয়েছে। নিষেধাজ্ঞার সময় মা ইলিশ ধরা, বিক্রি, মজুত ও পরিবহন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ বলে জানান তিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..