কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

বেশিরভাগ শেয়ারের দরপতনেও সূচক ইতিবাচক

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল বেশিরভাগ কোম্পানির দরপতন হলেও সবকটি সূচক ইতিবাচক ছিল। সে সঙ্গে লেনদেন সামান্য বেড়েছে। দর বেড়েছে মাত্র ৩৪ শতাংশ কোম্পানির। কমেছে ৫৪ শতাংশের দর। তা সত্ত্বেও সূচক ইতিবাচক ছিল। লেনদেনের শুরুতেই ডিএসইএক্স সূচকের উত্থান হয়। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সূচক সর্বোচ্চ চার হাজার ৭৬৫ পয়েন্টে উঠে যায়। এরপর ধীরে ধীরে নামতে থাকে। লেনদেনের শেষ সময় পর্যন্ত সূচক নি¤œমুখী থাকলেও প্রধান সূচক আট পয়েন্ট ইতিবাচক ছিল। বাকি দুই সূচকও ইতিবাচক অবস্থানে ছিল। টিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক, শেয়ারদর ও লেনদেনে একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আট দশমিক শূন্য চার পয়েন্ট বা দশমিক ১৭ শতাংশ বেড়ে চার হাজার ৭৩০ দশমিক ৩৪ পয়েন্টে অবস্থান করে।

ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক ছয় দশমিক ৭৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৬২ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৮১ দশমিক ৯৭ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ১১ দশমিক ৫৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৭০ শতাংশ বেড়ে এক হাজার ৬৪৬ দশমিক ৩৩ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন এক হাজার ৯৩৮ কোটি ৪৩ লাখ টাকা বেড়ে  দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৫৭ হাজার ১১৭ কোটি ৮৩ লাখ টাকায়। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৫৬৪ কোটি ২২ লাখ ১৭ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৬০ কোটি ৩৬ লাখ ৪৬ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে তিন কোটি ৮৫ লাখ টাকা। এদিন ২১ কোটি ৫৭ লাখ ৮৪ হাজার ৬৭০ শেয়ার এক লাখ ৫০ হাজার ২২৯ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৪৯ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১৮টির, কমেছে ১৮৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪২টির দর।

গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ। কোম্পানিটির ৪৪ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে তিন টাকা ১০ পয়সা। এরপর স্কয়ার ফার্মার ১৯ কোটি ১৯ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে এক টাকা ৪০ পয়সা। সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের ১৫ কোটি ৮০ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে পাঁচ টাকা ১০ পয়সা। ফরচুন শুজের ১৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ৩০ পয়সা। বেক্সিমকো ফার্মার ১১ কোটি ২৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর বেড়েছে এক টাকা ৪০ পয়সা। এছাড়া সুহƒদ ইন্ডাস্ট্রিজের ১১ কোটি টাকা, স্টাইল ক্রাফটের ১০ কোটি ৯২ লাখ, ডরিন পাওয়ারের ১০ কোটি ৪২ লাখ, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ১০ কোটি ও সিটি ব্যাংকের ৯ কোটি ১৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।   

৯ দশমিক ৭১ শতাংশ বেড়ে দর বৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ। জাহিন স্পিনিংয়ের দর আট দশমিক ৯৫ শতাংশ, ডরিন পাওয়ার আট দশমিক ৪২ শতাংশ, তোসরিফা সাত দশমিক ৮৭ শতাংশ, এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড ছয় দশমিক ৮১ শতাংশ, ড্রাগন সোয়েটারের পাঁচ দশমিক ২৬ শতাংশ, সায়হাম টেক্সটাইল চার দশমিক ৫২ শতাংশ, সি পার্ল রিসোর্টের দর সাড়ে চার শতাংশ, গ্রামীণফোন চার দশমিক ৪৭ শতাংশ ও আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ডের দর চার দশমিক ৪৪ শতাংশ বেড়েছে।   

এছাড়া ১১ দশমিক ৮৭ শতাংশ দর কমে নাহি এলুমিনিয়াম দরপতনের শীর্ষে উঠে আসে। সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের দর ৯ দশমিক ৭০ শতাংশ কমেছে। লিগ্যাসি ফুডওয়্যারের ৯ দশমিক ৫০ শতাংশ, আলহাজ্ব টেক্সটাইলের দর ৯ দশমিক ৪৬ শতাংশ, দুলামিয়া কটন আট দশমিক ১৬ শতাংশ, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস ছয় দশমিক ৮৯ শতাংশ, শতাংশ কমেছে।    

অন্যদিকে সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৩৮ দশমিক ৪২ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৪ শতাংশ বেড়ে আট হাজার ৭৩৫ দশমিক ৩৯ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৬৫ দশমিক ৭৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৫ শতাংশ বেড়ে ১৪ হাজার ৩৮০ দশমিক ৫৯ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৪৫ কোম্পানি এবং মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৯টির, কমেছে ১১১টির, অপরিবর্তিত ছিল ২৫টির দর।

সিএসইতে এ দিন ২৬ কোটি ৫৫ লাখ ৯০ হাজার ৩৮১ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২০ কোটি ৯৫ লাখ ১৩ হাজার ৪৭২ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন বেড়েছে পাঁচ কোটি ৬০ লাখ টাকা।

সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে সিলকো ফার্মা। কোম্পানিটির চার কোটি ৮৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এর পরের অবস্থানগুলোয় থাকা ডরিন পাওয়ারের এক কোটি ৭১ লাখ টাকার, লাফার্জহোলসিম এক কোটি ১৮ লাখ, ফরচুন শুজ ৯৬ লাখ টাকার, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স ৮৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..