মার্কেটওয়াচ

বেসরকারি বিনিয়োগ না বাড়লে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জিত হবে না

গত কয়েক বছর ধরে বেসরকারি বিনিয়োগ স্থির অবস্থানে রয়েছে। যদি বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানো না যায় সেক্ষেত্রে ২০৩০ সালে অর্থনীতির প্রবৃদ্ধির যে লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে সেটি সম্ভব হবে না। অর্থনীতির গ্রোথ ধরে রাখতে হলে বেসরকারি বিনিয়োগের প্রবৃদ্ধি বাড়াতে হবে। গতকাল এনটিভির মার্কেট ওয়াচ অনুষ্ঠানে বিষয়টি আলোচিত হয়।

হাসিব হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এএফপির ব্যুরো চিফ শফিকুল আলম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সালাউদ্দিন চৌধুরী, এএফসি এবং বিএমএসএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের এমডি মো. রিয়াদ মতিন।

শফিকুল আলম বলেন, গত বছর জিডিপির গ্রোথ ছিল আট দশমিক তিন শতাংশ। এটি ৪০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। আর সেখানে পুঁজিবাজারে অবস্থা নাজুক। এটা কোনো মতেই কাম্য নয়। আরেকটি বড় বিষয়, নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর দায়িত্বে স্বচ্ছতা থাকতে হবে। যদিও নিয়ন্ত্রক সংস্থা যা করছে আইনানুসারে করছে। কারও প্রতি পক্ষপাতিত্ব করছে না। তাদের কাজে যদি স্বচ্ছতা না থাকে তাহলে বাজার এভাবেই চলতে থাকবে।   

সালাউদ্দিন চৌধুরী বলেন, গত কয়েক বছর ধরে বেসরকারি বিনিয়োগ স্থির অবস্থানে রয়েছে। যদি বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানো না যায় সেক্ষেত্রে ২০৩০ সালে অর্থনীতির গ্রোথের যে লক্ষ্যমাত্রা রয়েছেÑসেটি সম্ভব হবে না। অর্থনীতির গ্রোথ ধরে রাখতে হলে বেসরকারি বিনিয়োগের প্রবৃদ্ধি বাড়াতে হবে। মানি ও ক্যাপিটাল মার্কেটে সুশাসন আনতে হবে। অর্থাৎ মানি ও ক্যাপিটাল মার্কেটে যেসব জায়গায় সমস্যা রয়েছে, দ্রুত এসব সমস্যার সমাধান করতে হবে। তা না হলে সমস্যা থেকেই যাবে।

তিনি আরও বলেন, পুঁজিবাজারে দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন করতে হলে সেকেন্ডারি মার্কেটের উন্নয়নের বিকল্প নেই। বিশ্বের সব পুঁজিবাজারে সেকেন্ডারি মার্কেট দিয়ে চলে তাদের অর্থনীতি। তাই সেকেন্ডারি মার্কেটের উন্নয়ন করতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত সেকেন্ডারি মার্কেটের উন্নয়ন হবে না ততক্ষণ বিনিয়োগকারী আসবে না। কারণ একটি পুঁজিবাজার টিকে থাকে সেকেন্ডারি মার্কেট দিয়ে। 

মো. রিয়াদ মতিন বলেন, বর্তমানে বাজারের যে অবস্থা অর্থাৎ এ সময়ে বাজার ভালো করার ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সমন্বয়ের বিকল্প নেই। কারণ বাজারে বিনিয়োগকারী প্রতিনিয়ত কমে যাচ্ছে। এর পেছনে অনেক কারণ রয়েছে। বিনিয়োগকারীদের আস্থা বাড়াতে হলে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর একে ওপরকে দোষারোপ না করে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। যাতে বিনিয়োগকারীর আস্থা বাড়ানো যায়।

শ্রুতিলিখন: শিপন আহমেদ

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..