বিশ্ব প্রযুক্তি

বৈদ্যুতিক গাড়িতে ৪০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে ভক্সওয়াগন

শেয়ার বিজ ডেস্ক: জার্মানির বৃহত্তম ও বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভক্সওয়াগন বৈদ্যুতিক গাড়িতে আরও ৪০ বিলিয়ন ডলার বা ৩৪ বিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগ করবে। আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে নতুন প্রযুক্তির এ গাড়িখাতে এ পরিমাণ বিনিয়োগ করবে প্রতিষ্ঠানটি। গত শুক্রবার প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ম্যাথিয়াস মুলার গ্রুপের সুপারভাইজরি বোর্ডের এক বৈঠক শেষে বলেন, আমরা গাড়ির পুনরুদ্ভাবন করছি। এর অগে চীনে বৈদ্যুতিক গাড়িতে ১০ বিলিয়ন ইউরো বা ১১ দশমিক আট বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। খবর এএফপি।

২০১৮ থেকে ২০২২ এ পাঁচ বছরের জন্য নির্ধারিত খরচের বড় অংশ বৈদ্যুতিক ও হাইব্রিড গাড়ি উন্নয়নের জন্য ব্যয় হবে বলে এক বিবৃতিতে জানায় ভক্সওয়াগন। এছাড়া স্বচালিত গাড়ি, নতুন মবিলিটি সার্ভিস এবং কার-শেয়ারিংয়ের মতো বিষয়গুলোয়ও উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ব্যয় করা হবে।

বিশ্ববাজারে তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী যুক্তরাষ্ট্রের টেসলার সঙ্গে প্রতিযোগিতায় পাল্লা দিতে মূলত এ বিনিয়োগ করছে বলে জানা যায়।

অন্যান্য প্রথাগত গাড়ি নির্মাতাদের মতো ভক্সওয়াগনও ভবিষ্যতে আরও বেশি বেশি স্মার্ট গাড়ির দিকে তাদের মনোযোগ বাড়াচ্ছে। জিরো-এমিশন গাড়ি ভক্সওয়াগনের জন্য বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এর আগে প্রতিষ্ঠানটি নির্গমনের প্রতারণা কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েছিল। প্রতিষ্ঠানটি এখন সে কলঙ্কের দায় মুছতে চাইছে।

ভক্সওয়াগন গ্রুপ, যাদের মালিকানায় অডি পোরশে ও স্কোডার মতো ১২টি ব্র্যান্ড রয়েছে, তারা ২০৩০ সালের মধ্যে তাদের পুরো বহরকে বৈদ্যুতিক গাড়িতে রূপান্তরিত করে ফেলবে বলে সেপ্টেম্বরে ঘোষণা দিয়েছিল।

প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী বলেন, পরিকল্পনা অনুমোদিত হওয়ার পর আমরা এখন ২০২৫ সাল নাগাদ ইলেকট্রিক মবিলিটিতে বৈশ্বিক ক্ষেত্রে ভক্সওয়াগনকে প্রতিযোগিতায় শীর্ষে পরিণত করার ব্যাপারে ভিত্তি স্থাপন করছি।

বিশ্বব্যাপী পরিবেশ দূষণমুক্ত করতে পেট্রল বা ডিজেলচালিত গাড়ি বন্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে চীনসহ বিভিন্ন দেশ। আর এজন্য গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণে এগিয়ে আসছে। এজন্য ভক্সওয়াগন, টয়োটা ও টেসলার মতো বড় কোম্পানিগুলো ই-কারে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে।

ভক্সওয়াগনের নতুন মডেলের এ বৈদ্যুতিক গাড়িগুলো এক চার্জে ৪০০ থেকে ৬০০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে পারবে। যেখানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান কারমেকার প্রতিষ্ঠান টেসলার বৈদ্যুতিক গাড়ি চলতে পারবে ৪৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত। প্রধান নির্বাহী বলেন, তাদের গাড়ি টেসলার গাড়ির চেয়ে আরও উন্নতমানের ও উপযোগী।

বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে ভক্সওয়াগনের গাড়ি নির্মাণ ও সংযোজনের কারখানা রয়েছে। জার্মানি, মেক্সিকো, স্লোভাকিয়া, চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, রাশিয়া, ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, পর্তুগাল, স্পেন, পোল্যান্ড, বসনিয়া অ্যান্ড হারজেগোভিনা এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় এর কারখানা রয়েছে।

 

 

 

সর্বশেষ..