স্পোর্টস

‘বোলিং কোচ’ গিবসনকে পেয়ে খুশি বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) চলাকালীন সময়ই গুঞ্জন ছিল টাইগারদের বোলিং কোচ হচ্ছেন ওটিস গিবসন। তবে ব্যাপারটি নিয়ে কোনো পক্ষই তেমন কিছুই জানায়নি। তাদের মধ্যে যে আলোচনা চলছিল তা কিন্তু টের পাওয়া গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত সেটারই সুফল মিলেছে, গত পরশু সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বিসিবি জানিয়েছে, ওটিস গিবসনকেই পেস বোলিং কোচ হিসেবে দুবছরের জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। গতকাল তো সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন জানিয়েছেন, গিবসনকে বোলিং কোচ হিসেবে পেয়ে খুশি বাংলাদেশ।

বর্তমানে ইংল্যান্ডে রয়েছেন গিবসন। সেখানে থাকা অবস্থায় গত পরশু তার সঙ্গে চুক্তি চূড়ান্ত করে বিসিবি। ওইদিন তা গণমাধ্যমে জানানো হলেও তার আগেই গিবসনের পাকিস্তানের ভিসা করিয়ে নিয়েছিল বোর্ড। ক্যারিবিয়ান এ কোচ ২৪ জানুয়ারি প্রথম টি-টোয়েন্টির আগে ইংল্যান্ড থেকেই সরাসরি লাহোরে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। গিবসন যাওয়ায় এইচপি দলের পেস বোলিং কোচ চম্পাকা রমানায়াকে আর পাকিস্তান যাচ্ছেন না।

গেল বিপিএলে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের প্রধান কোচ ছিলেন গিবসন। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক বোলিং কোচ শার্ল ল্যাঙ্গাভেল্টের ছেড়ে দেওয়া পদ পেতে আগ্রহী ছিলেন তিনি। বিসিবির আগ্রহেরও শুরুতে ছিল তার নাম। বিসিবির সঙ্গে ইতিবাচক আলাপের খবর গিবসনই একাধিকবার সংবাদ মাধ্যমে দিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত গত পরশু সেটাই সত্যি হয়েছে।

গিবসন আসায় দলের কোচিং ইউনিটের শক্তি বেড়ে গেছে বলে মনে করেন নিজামউদ্দিন চৌধুরী, ‘অসাধারণ অভিজ্ঞতা নিয়ে গিবসন বাংলাদেশে এসেছেন। সারা বিশ্বজুড়ে খেলেছেন, কোচিংও করিয়েছেন। কাছ থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে দেখার সুযোগও পেয়েছেন তিনি। আমি নিশ্চিত, বাংলাদেশ দলের কোচিং ইউনিটে বেশ মূল্যবান অন্তর্ভুক্তি হতে যাচ্ছেন তিনি।’

বাংলাদেশের আগে গিবসন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের কোচ ছিলেন। তবে ওই দুই দেশে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক এ ছিলেন হেডকোচ। তার আগে তিনি ইংল্যান্ডের বোলিং কোচের দায়িত্ব সামলে ছিলেন। তার মতো এমন এক কোচকে পেয়ে তাই দারুণ খুশি বিসিবি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..