বাণিজ্য সংবাদ শিল্প-বাণিজ্য

ব্যাংক ও সরকারে অর্থের সংকট নেই: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের ব্যাংক ব্যবস্থায় অর্থের সংকট নেই বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। একই সঙ্গে একটি জাতীয় দৈনিক সরকারের অর্থ সংকট বিষয়ে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তা সঠিক নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি দেশের পুঁজিবাজারে বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন ঘটানো হবে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন। এ বিষয়ে সহায়তা দেবে উন্নয়ন সহযোগ্য প্রতিষ্ঠান বিশ্বব্যাংক।
রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে মন্ত্রীর নিজ কার্যালয়ে গতকাল বিশ্বব্যাংকের আঞ্চলিক পরিচালক জুবিদা খেরুজ এলাউয়া সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এসব বিষয় জানান অর্থমন্ত্রী বলেন।
সরকারি ব্যয়ে অর্থ সংকট রয়েছে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, অর্থের কোনো সংকট নেই। ব্যাংকগুলোতে উদ্বৃত্ত তারল্য রয়েছে ৯২ হাজার কোটি টাকা। তিনি বলেন, যদি আপনারা কোথাও কোনো ব্যাংকে গিয়ে টাকা না পান, যদি এলসি স্যাটেলমেন্ট করতে না পারেন, যদি পেমেন্ট না করতে পারেন তবে আমাকে এসে বলবেন। তা না হলে আমরা কীভাবে বিশ্বাস করব?
অর্থমন্ত্রী বলেন, শেয়ারবাজার ও বন্ড মার্কেট উন্নয়নে সহায়তা করবে বিশ্বব্যাংক। এছাড়াও অর্থনীতিতে যেসব জায়গায় আমরা পিছিয়ে আছি, সেসব জায়গার উন্নয়নেও এগিয়ে আসবে সংস্থাটি। আমরা অর্থনৈতিকভাবে যেখানে আছি, সেখান থেকে আরও উন্নতি করতে অনেক শক্তি ব্যয় করতে হবে। এ জন্য আমাদের সক্ষমতা আরও বাড়াতে হবে। বিশ্বব্যাংক এক্ষেত্রে আরও বেশি বেশি করে সাহায্য করতে প্রস্তুত। বন্ড মার্কেটের উন্নয়নে করপোরেট খাতের প্রভিডেন্ড ফান্ডগুলোও নিয়ে আসা হবে। এসব বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীও একমত প্রকাশ করেছেন। বর্তমনে আমাদের অর্থনীতিতে আর্থিক খাতের উপাদান কম। উপাদান কম থাকলে অর্থনীতি ছোট হয়ে যায়। অর্থনীতিকে বেগমান করতে হলে আমাদের অনেক টুলস (উপাদান) দরকার, আর এ কাজগুলোই করা হচ্ছে।
অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের বন্ড মার্কেটটা প্রকৃতপক্ষেই উন্নয়ন করা হয়নি। এ মার্কেটটার উন্নয়ন করতে হবে। এ মার্কেটে সরকারি-বেসরকারি উভয় সেক্টরই আসবে। বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন হলে শেয়ার বাজারেরও উন্নয়ন হবে। বন্ড মার্কেটের উন্নয়নে বিভিন্ন ফি কমানো হয়েছে। বন্ড মার্কেটকে গতিশীল করার জন্য যা যা করা দরকার তাই করা হবে। বন্ড মর্কেটকে আমরা উন্নয়ন করবই। কেননা বন্ড মার্কেটের উন্নয়নে শেয়ার বাজারের উন্নয়ন হবে। বন্ড মার্কেট এমনভাবে উন্নয়ন করা হবে যাতে করে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাও চলে আসবে। সরকার সবসময় পুঁজি বাজারের সঙ্গে রয়েছে। পুঁজি বাজারের উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে। সরকারের কাজ হচ্ছে পুঁজিবাজারকে সাপোর্ট দেওয়া, সেটা আমরা দিয়েছি। আগামীতে ভালো ভালো সরকারি কোম্পানি পুঁজিবাজারে আনা হবে।
বিশ্বব্যাংকের আঞ্চলিক পরিচালক জুবিদা খেরুজ এলাউয়া বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি যেভাবে এগুচ্ছে তা প্রশংসাযোগ্য। বাংলাদেশের ডেট টু জিডিপিও ভালো। এটা একটি সরকারের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতাকে নির্দেশ করে। ভালো ভবিষ্যতের জন্য একটি শক্তিশালী অর্থনৈতিক ভিত দরকার। বিশ্বব্যাংক কিছু টেকনিক্যাল এসিস্টান্স, রেগুরেটা রিরিফর্ম এবং পলিসির উন্নয়নে সহায়তা করবে। বন্ড মাকের্ট ও শেয়ারবাজারের উন্নয়নে পুরো কাজটাই সমন্বিতভাবে করা হবে।

সর্বশেষ..