প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্বামী হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

প্রতিনিধি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রবাসফেরত স্বামী তাজুল ইসলামকে মাথায় আঘাত করে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী সামসিয়া আক্তার তোহাকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের পিতা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। গতকাল দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের পর নিহতের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ প্রবাসী তাজুলের স্ত্রী সামসিয়া আক্তার তোহাকে (৪৫) আটক করে। এর আগে শুক্রবার রাতে সদর উপজেলার বাসুদেব ইউনিয়নের ঘাটিয়ারা গ্রামে স্ত্রী তোহার আঘাতে মারা যান তার স্বামী। নিহত তাজুল ইসলাম (৫০) ওই গ্রামের এমরান মোল্লার ছেলে।

নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার পরিদর্শক মো. এমরানুল ইসলাম জানান, তাজুল ইসলাম দীর্ঘ ২৪ বছর ধরে সৌদি আরবে ছিলেন। দুই মাস আগে তিনি দেশে ফিরে আসেন। দেশে ফেরার পর পারবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাজুল ইসলামের সঙ্গে স্ত্রী সামসিয়া আক্তার তোহার মনোমালিন্য চলছিল।

শুক্রবার মধ্যরাতে ঘরের জানালা বন্ধ করা নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এরই এক পর্যায়ে তাজুল তার স্ত্রী তোহাকে থাপ্পড় দেয়। এ সময় স্ত্রী তোহাও পাল্টা তার স্বামী তাজুলকে ধাক্কা দিয়ে টেবিলের ওপর ফেলে দিলে তিনি মাথায় আঘাত পান। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানোসহ অভিযুক্ত তোহাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা এমরান মোল্লা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। গতকাল দুপুরে ময়না তদন্তের পর নিহতের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। স্বামী হত্যার দায়ে আটককৃত স্ত্রী সামসিয়া আক্তার তোহাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।