পত্রিকা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া অংশের ৪০ কিলোমিটারজুড়ে দীর্ঘ যানজট

কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক

এইচএম সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া: একে তো সরু রাস্তা, তার ওপর গাড়ির পেছনে গাড়ি। সড়ক পারাপার হওয়ারও জো নেই। এভাবে যানজটে পড়েছে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া অংশের অন্তত ৪০ কিলোমিটার এলাকা।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে চলমান যানজটে জনমনে নাভিশ্বাস উঠে এসেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে লাঙ্গলবন্দ সেতু সংস্কারের জন্য যান চলাচল বন্ধ। এর বিকল্প হিসেবে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক হয়ে যানবাহন চলায় এমন দশা হয়েছে বলে জানা গেছে।

দুই ঘণ্টার পথ পাড়ি দিতে লাগছে ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা। ফলে স্বাভাবিকের চেয়েও কয়েকগুণ চাপ বেড়েছে যানবাহনের। বিশেষ করে গত মঙ্গলবার সকাল থেকে চাপ বেড়েছে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে। এ কারণে মহাসড়কটির ব্রাহ্মণবাড়িয়া অংশের ৪০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে শুধুই যানজট।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর-মেঘনা সেতুর মাঝামাঝিতে লাঙ্গলবন্ধ সেতুর ক্ষতিগ্রস্ত ডেক সø্যাব মেরামতের জন্য গত সোমবার (১২ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সব যানবাহন লাঙ্গলবন্ধ সেতুর এক পাশ দিয়ে চলাচল করার কথা বলা হয়। আর সোমবার রাত ১০টার পর থেকে বুধবার (১৪ জুলাই) দুপুর ১২টা পর্যন্ত সেতুর ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে বলে নির্দেশনা দেয়া হয়। এ সময় বিকল্প হিসেবে সড়ক বিভাগ থেকে হালকা যানবাহনগুলোকে মোগড়াপাড়া-কাইকারটেক ব্রিজ-নবীগঞ্জ-মদনপুর সড়ক এবং ভারী যানবাহনগুলো কাঁচপুর-ভুলতা-নরসিংদী-ভৈরব ব্রিজ-সরাইল-ব্রাহ্মণবাড়িয়া-কুমিল্লা সড়ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। তবে বিকল্প সড়ক হিসেবে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক ব্যবহার করে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে চালক-সহকারীদের। কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিশ্বরোড মোড় থেকে কুমিল্লার ময়নামতি পর্যন্ত প্রায় ১০০ কিলোমিটার অংশটি আঞ্চলিক মহাসড়ক হলেও সরু আকৃতির, অনেকটা স্থানীয় রাস্তার মতো। তার ওপর বিভিন্ন জায়গা ভাঙাচোরা। ফলে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে দুই ঘণ্টার পথ পাড়ি দিতে লাগছে ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা।

ভ্যাপসা গরমের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ যানজটে আটকে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন চালক-সহকারীরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ শাহজালাল আলম জানান, ‘ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়কে লাঙ্গলবন্দ সেতু মেরামতের কাজ চলছে। সেতু মেরামতের কারণে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে ভারী যানবাহনের চাপ বেড়েছে। এর মধ্যে মালবাহী কনটেইনার, কাভার্ডভ্যান, ট্রাক ও পিকআপ রয়েছে। যানজট নিরসনে জেলা পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক দেবব্রত কর বিষয়ের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘থেমে থেমে মহাসড়কে যান চলাচল করছে। তবে বুধবার দুপুর নাগাদ সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। তা হয়ে গেলে কুমিল্লা সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়া অংশে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..