বিশ্ব সংবাদ

ব্রিটিশ অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি ৮০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ

টিকা প্রয়োগ ও ভোক্তাব্যয় বৃদ্ধি

শেয়ার বিজ ডেস্ক: কভিডের ডেল্টা ধরনের মধ্যেও গত ২৩ জুলাই পুরোপুরি বিধিনিষেধ তুলে দিয়েছে যুক্তরাজ্য সরকার। এর আগে এপ্রিলে বিধিনিষেধ শিথিল করে বাণিজ্যিক কার্যক্রম সচল করেছিল। ফলে দেশটির অর্থনৈতিক কর্মযজ্ঞ পুরোদমে চলছে। এ অবস্থায় দেশটির একটি শীর্ষস্থানীয় অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান ইওয়াই আইটেম ক্লাব ভবিষ্যদ্বাণী করেছে যে, চলতি বছরের শেষ নাগাদ কভিডপূর্ব অবস্থায় ফিরে আসবে ব্রিটিশ অর্থনীতি। খবর: গার্ডিয়ান।

ইওয়াই আইটেম ক্লাবের জ্যেষ্ঠ অর্থনীতি উপদেষ্টা মার্টিন বেক গতকাল বলেছেন, দ্রুত অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ভোক্তারা তাদের মহামারি চলাকালীন সঞ্চয় থেকে ব্যয় বাড়িয়েছে। অর্থনীতিবিদরা বলেছেন, ব্রিটিশ অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি ৮০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দ্রুত সম্প্রসারিত হচ্ছে, যা চলতি বছরের শেষ নাগাদ কভিডপূর্ব অর্থনীতিতে ফিরে আসবে।

আইটেম ক্লাবের অর্থনীতিবিদরা বলছেন, যুক্তরাজ্যজুড়ে কভিড টিকার দ্রুত বাস্তবায়ন এবং ভোক্তাব্যয় বৃদ্ধির কারণে বর্তমান জিডিপি প্রবৃদ্ধি সাত দশমিক ছয় শতাংশ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে, যা ১৯৪১ সাল থেকে বার্ষিক জাতীয় আয়ে দ্রুত প্রবৃদ্ধি হার। যদিও ২০২০ সালের যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি ৯ দশমিক আট শতাংশ হ্রাস পেয়েছিল, যা ধনী দেশের জোট জি৭ ভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা ছিল।

আশার কথা হলোÑদেশব্যাপী কভিডের কারণে শ্রমিকদের আইসোলেশনের ফলে কর্মী সংকট থাকা সত্ত্বেও দোকানপাট, রেস্টুরেন্ট, শিল্পকারখানা, এমনকি রেলওয়ে সেবাও মালিকপক্ষ স্বল্প শ্রমিক দিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

আইটেম ক্লাবের প্রতিবেদন অনুযায়ী, লকডাউনের মধ্যেও অর্থনীতির চাকা দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছে। যদিও স্বাস্থ্যবিদরা সতর্ক করেছেন। জ্যেষ্ঠ অর্থনীতি উপদেষ্টা মার্টিন বেক বলেছেন, যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি বেশি নির্ভর করে ভোক্তার ব্যয়ের ওপর। যেমন অবসর সময়ে বিনোদন তথা পর্যটনমূলক কর্মকাণ্ড। তিনি বলেন, লকডাউন তুলে দেয়ায় ব্রিটিশ নাগরিকরা নিজস্ব ব্যয় বাড়িয়েছে, যা দ্রুত অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে ভূমিকা রাখবে।

অর্থনীতিবিদদের মতে, বসন্তকালীন সময়ে শুধু বেসরকারি খাতে ছয় দশমিক আট শতাংশ প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধির পূর্বাভাস দেয়া হয়েছিল, যা চলতি বছরের শেষ নাগাদ মহামারি পূর্ব অবস্থান নিয়ে যাবে ব্রিটিশ অর্থনীতিকে।

তবে প্রতিবেদনে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়েছে, মূল্যস্ফীতি এবং বেকারত্ব হার বৃদ্ধি যুক্তরাজ্যের প্রবৃদ্ধিকে প্রভাবিত করতে পারে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২১ সালের শেষ নাগাদ ব্রিটিশ ভোক্তা মূল্যস্ফীতি (সিপিআই) তিন দশমিক পাঁচ শতাংশ হতে পারে। ২০২২ সালে বেকারত্ব হার বেড়ে সর্বোচ্চ পাঁচ দশমিক এক শতাংশে পৌঁছাতে পারে। 

লন্ডনে আকস্মিক বন্যা: ভারী বৃষ্টি ও বজ্রপাতের প্রভাবে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের কয়েকটি এলাকায় দেখা দিয়েছে আকস্মিক বন্যা। রাস্তা ও আন্ডারগ্রাউন্ড লাইনে পানির উচ্চতা দ্রুত বেড়ে যাওয়ায় বেশকিছু গাড়ি আটকে পড়ার খবরও পাওয়া গেছে। রোববার কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে প্রায় তিন শতাধিক জরুরি কল পেয়েছে সেখানকার ফায়ার সার্ভিস। খারাপ আবহাওয়ায় ঘরের বাইরে বের হওয়ার বিষয়ে সতর্ক করেছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..