বিশ্ব বাণিজ্য

ব্রেক্সিট অনিশ্চয়তায় সুদহার কমাতে পারে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা অব্যাহত থাকলে সুদহার কমানোর প্রয়োজন হতে পারে বলে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের একজন নীতিনির্ধারক জানিয়েছেন। এমনকি চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট এড়ানো সম্ভব হলেও সুদহার কমানোর দরকার হতে পারে বলে জানিয়েছেন ব্যাংকের ওই কর্মকর্তা। খবর: বিবিসি।
গত বছরের আগস্ট থেকে সুদহার শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশে নির্ধারিত রয়েছেন। শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে এটি করা হয়েছিল। গত সপ্তাহে ব্রিটেনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানায়, ব্রেক্সিট অনিশ্চয়তার মানে হলো ব্রিটেনের অর্থনীতির তার সক্ষমতার তুলনায় খারাপ অবস্থানে রয়েছে।
মিশেল সন্ডার্স বলেছেন, যদি যুক্তরাজ্য চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট এড়াতে পারে তারপরও মুদ্রানীতি ওইপথেই যেতে পারে। পরবর্তী পদক্ষেপে সুদহার বাড়ানোর চেয়ে কমানোর সম্ভাবনাই বেশি। তার এ মন্তব্যের পর পাউন্ডের মূল্যমান আরও কমে গেছে। সর্বশেষ লেনদেনে পাউন্ডের মূল্যমান শূন্য দশমিক চার শতাংশ কমে এক ডলার ২২ সেন্টের সামান্য বেশি হয়েছে।
ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের মুদ্রানীবিষয়ক নীতিনির্ধারণী কমিটির (এমপিসি) সদস্য সন্ডার্স বলেছেন, চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট এড়ানো গেলেও ব্রিটেনের ইইউ ত্যাগ বড় একটা অনিশ্চয়তা তৈরি করবে এবং এর প্রভাব ইংল্যান্ডের অর্থনীতিতে পড়বে। ফলে দীর্ঘ সময়ের জন্য একটি সমন্বয়মূলক মুদ্রানীতি গ্রহণের প্রয়োজন পড়বে। বৈশ্বিক অর্থনীতিতে অনিশ্চয়তার কথাও উল্লেখ করেছেন তিনি।
এমপিসির সর্বশেষ বৈঠকেও সুদহার শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশে অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিটের সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে ব্যাংকের অবস্থানের কথাও পুনর্ব্যক্ত করেছেন তিনি। স্যান্ডার্স বলেছেন, সব ধরনের সম্ভাবনাই উš§ুক্ত রয়েছে ব্যাংকের সামনে। এটি নির্ভর করবে প্রবৃদ্ধির কতটা ক্ষতি হচ্ছে এবং পাউন্ডের মূল্যমান পতনে আরও কী পরিমাণ মূল্যস্ফীতি বাড়বে তার ওপর।
চলতি মাসের শুরুর দিকে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের গভর্নর মার্ক কারণে ব্রিটেনের অর্থনীতি নিয়ে নেতিবাচক অবস্থানের কথা তুলে ধরেন। তার মতে চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট দেশটির অর্থনীতির আকার পাঁচ দশমিক পাঁচ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে দিতে পারে। তবে প্যারিসভিত্তিক ওইসিডির মদে আরও ব্যবস্থাপনা করা গেলে চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিটের এ প্রভাব হতে পারে দুই শতাংশ।
ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইইউ থেকে বেরিয়ে যেতে চান যে কোনো মূল্যে। চুক্তিসহ বা চুক্তিছাড়া যে কোনোভাবেই এটির বাস্তবায়ন চান তিনি।

সর্বশেষ..