শেষ পাতা

ভারতের উপহারের টিকা এলো বাংলাদেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক: বেশ কিছুদিন ধরে আলোচনায় থাকা করোনার টিকা অবশেষে এলো বাংলাদেশে। গতকাল উপহার হিসেবে পাঠানো করোনাভাইরাসের ২০ লাখ ডোজ টিকা আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের কাছে তুলে দিয়েছে ভারত। এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিশেষ ফ্লাইট টিকার এ চালান নিয়ে গতকাল বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।

দুপুরে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের হাতে টিকার দুটি বাক্স তুলে দিয়ে হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই টিকা পৌঁছে যাওয়ায় দ্রুতই দেশে টিকাদান শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

করোনাভাইরাস মহামারিতে বিশ্ব যখন বিপর্যস্ত, তখন আশা হয়ে এসেছে টিকা। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এ টিকা পৌঁছে যাওয়ায় দ্রুতই দেশে টিকাদান শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ সরকারিভাবেও ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজ টিকা কিনছে, যার প্রথম চালানে ৫০ লাখ ডোজ টিকা ২৫ জানুয়ারির মধ্যে পৌঁছাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শুরুতে ফেব্রুয়ারির প্রথম ভাগে টিকাদান শুরুর পরিকল্পনা নেয়া হলেও উপহারের টিকা আগে আগে পাওয়ায় প্রয়োগের সময়ও এগিয়ে আনা হয়েছে। বিমানবন্দর থেকে দুটি ফ্রিজার ভ্যানে করে টিকার বাক্স নিয়ে রাখা হয়েছে তেজগাঁওয়ে ইপিআই স্টোরেজে। সেখান থেকে কিছু টিকা রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় নিয়ে উপহার গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়।

ইপিআইরে প্রোগ্রাম ম্যানেজার গোলাম মাওলা সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ স্টোরেজের তাপমাত্রা মাইনাস আট ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। সে কারণে টিকা এখানে রাখা যাবে।’ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. রওশন জাহান আক্তার আলো জানান, মোট ১৬৭টি কার্টুনে ২০ লাখ চার হাজার ডোজ টিকা এসেছে ভারত থেকে।

ভ্যাকসিন ইপিআই সেন্টারে সংরক্ষণের সময় ইপিআইয়ের প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. মাওলা বাক্স, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. সাইফুল ইসলাম, তেজগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বুলবুল উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..