বিশ্ব সংবাদ

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে অগ্নিকাণ্ড

শেয়ার বিজ ডেস্ক: করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের একটি প্লান্টে আগুন লেগেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুনের মেয়র মুরালিধর মহল জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে মানজিরি প্লান্টে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ১০টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। তবে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় টিকা উৎপাদন এবং এর মজুত ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। খবর: টাইমস অব ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস।

জানা যায়, ইনস্টিটিউটের মানজিরি প্লান্টের পঞ্চম ফ্লোরে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। এ ফ্লোরে যক্ষ্মার প্রতিষেধক বিসিজি টিকা সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়। 

ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক সুরেশ যাদব জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের টিকা কোভিশিল্ড যেখানে উৎপাদন ও মজুত রাখা হয়েছে সেই স্থান থেকে অনেক দূরে অগ্নিকাণ্ড শুরু হয়েছে। আর সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান নির্বাহী আদার পুনাওয়ালা এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, অগ্নিকাণ্ডে কারখানার কয়েকটি ফ্লোর ক্ষতিগ্রস্ত হলেও কভিড ভ্যাকসিন উৎপাদন ইউনিটটি নিরাপদ আছে।

পুনের মেয়র মুরলিধর মহল আরও জানান, স্থানীয় সময় বেলা ২টা ৫০ মিনিটে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকল বাহিনীর ১০টি ইউনিট এবং আরও ২টি অতিরিক্ত ট্যাংকার।

পুনে মিউনিসিপ্যাল করপোরেশনের মুখ্য অগ্নিকাণ্ড কর্মকর্তা প্রশান্ত রানপাইজ বলেন, ‘ভবনের অভ্যন্তরে চার ব্যক্তি রয়েছেন। আমরা এখন পর্যন্ত তিনজনকে উদ্ধার করতে পেরেছি, যদিও ধোঁয়ার কারণে কাজে বিঘ্ন ঘটছে। আগুন এখন পর্যন্ত তৃতীয়, চতুর্থ এবং পঞ্চম তলায় ছড়িয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত ১০টি ইউনিট পাঠানো হয়েছে।’

উল্লেখ্য, বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পরিমাণ টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট পুনের প্রায় ১০০ একর এলাকাজুড়ে বিস্তৃত। অগ্নিকাণ্ড শুরু হওয়া মানজিরি কমপ্লেক্স থেকে কোভিশিল্ড উৎপাদনের জায়গাটির দূরত্ব বেশ কয়েক মিনিটের। ভবিষ্যতের মহামারি মোকাবিলা এবং প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন সক্ষমতা বাড়ানোর চিন্তা করে মানজিরি কমপ্লেক্সে অন্তত আট থেকে ৯টি ভবনের নির্মাণকাজ চলছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..