আজকের পত্রিকা স্পোর্টস

ভূয়া ক্রেতারা দাম বাড়াচ্ছেন : মুশফিকের ব্যাট নিলাম স্থগিত

ক্রীড়া প্রতিবেদক: সাকিব আল হাসানের বিশ্বকাপে ঝড় তোলা ব্যাট নিলামে বিক্রি হয়েছে ২০ লাখ টাকা। আর মুশফিকুর রহিমের ব্যাটের মূল্য প্রায় অস্বাভাবিক পর্যায়ে চলে যায়। ৪১ লাখ টাকা! বিস্ময়কর তো বটেই। এ কারণেই সন্দেহ জাগে আয়োজকদের। দেখা যায় অনেক ভূয়া ক্রেতা যোগ দিয়েছেন নিলামে। এ কারণেই এই ব্যাটের নিলাম  কার্যক্রম সাময়িকভাবে স্থগিত করেছেন আয়োজকরা।

করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যে নিজের প্রিয় ব্যাটটি উৎসর্গ করেছেন মুশফিকুর রহিম। নিলামে এই ব্যাট বিক্রি করে দুস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়াতে চান জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। চারদিন আগে নিলামও শুরু হয়।

নিলাম কার্যক্রম পরিচালনা করতে মুশফিকের ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি নিবকো ই-কর্মাস সাইট পিকাবু’র সঙ্গে চুক্তি করে। ৯ মে রাতে এই নিলাম কার্যক্রম শুরু হয়।  বলা হয় নিলাম চলবে ১৪ মে পর্যন্ত।

মঙ্গলবার নিবকো ও পিকাবু’র কর্মকর্তারা জানান, ‘সন্দেহজনক কিছু প্রক্রিয়ার কারণে এই নিলাম আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। ভুয়া ক্রেতা সেজে বেশ কয়েকজন এই নিলামে ব্যাটের মুল্য অস্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় অনেক বেশি বাড়িয়েছে।  একবারে ১০ হাজার টাকার বেশি যাতে না বাড়ে সেটাই ঠিক করেছিলাম। কিন্তু কিছু ক্রেতা একেকবারে এই মূল্য ৮০ হাজার টাকা করে বাড়িয়ে দিয়েছে। এ জন্য আপাতত নিলাম প্রক্রিয়া স্থগিত রাখা হচ্ছে।’
৫২বার মুশফিকের ব্যাটের দাম হাঁকা হয়েছে। নিলামে ব্যাটের ভিত্তিমূল্য ছিল ৬ লাখ টাকা।

এর আগে করোনাভাইরাসে দূর্গতদের সাহায্যার্থে ২০১৯ বিশ্বকাপে খেলা ব্যাট নিলামে তুলে ২০ লাখ টাকায় বিক্রি করেন সাকিব আল হাসান।

২০১৬ সালে সিডনিতে স্থানীয় দোকানে একটি ক্রিকেট ব্যাটে ১৫ জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার সই করেছিলেন। সেই ব্যাট হাতবদল হয়ে অকশন ফর অ্যাকশনে নিলাম করে বিক্রি হয়েছে ৩ লাখ টাকায়। এই টাকা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে করোনা দূর্গতের সাহায্যে ব্যয় করা হবে। এছাড়া মরণ ব্যাধি এ ভাইরাস প্রতিরোধে নিলামে উঠেছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক আকবর আলীর জার্সি ও গ্লাভস, মোসাদ্দেক হোসেন, নাঈম শেখের ব্যাট, মাশরাফি বিন মুর্তজার সই করা ক্যাপ, ২০১১ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের সই করা একটি ব্যাট। এদিকে মাশরাফি বিন মুর্তজার ক্যাপের ভিত্তি মূল্য ছিল ১ লাখ টাকা। এ পর্যন্ত দাম উঠে ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..