প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ভেঙে ফেলা হবে যুক্তরাষ্ট্রের রব এলিমেন্টারি স্কুল

শেয়ার বিজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের উভালডের রব এলিমেন্টারি স্কুলে গুলিবর্ষণের ঘটনায় ১৯ শিক্ষার্থী ও দুই শিক্ষক নিহত হন। সেই  স্কুলটি ভেঙে ফেলার কথা জানিয়েছেন শহরটির মেয়র ডন ম্যাকলাফলিন। খবর: বিবিসি।

গত মঙ্গলবার উত্তেজনাময় ও আবেগঘন এক কাউন্সিল বৈঠকে শহরটির বাসিন্দারা ওই বন্দুক হামলার ঘটনার ব্যাপারে নানা প্রশ্নের উত্তর জানতে চাইলে মেয়র এ কথা বলেন। স্কুলটি কবে ভেঙে ফেলা হবে, তা নির্দিষ্ট করে জানাননি মেয়র। গত ১৪ মে গুলিবর্ষণের ঘটনার পর জনমনে তীব্র ক্ষোভ তৈরি হয়। এ ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, তারা আক্রমণকারীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে এক ঘণ্টার বেশি সময় নিয়েছে।

ম্যাকলাফলিন বলেন, স্কুলের সুপারিনটেনডেন্টের সঙ্গে আলোচনা করেছি। আমার মত, স্কুলটি ভেঙে ফেলা হবে। আপনি কোনো শিশু বা শিক্ষককে আর কখনও ওই স্কুলে ফিরে যেতে বলতে পারেন না। রব এলিমেন্টারি স্কুলে দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ গ্রেড মিলিয়ে প্রায় ৬০০ শিক্ষার্থী রয়েছে। গত মাসে স্টেট সিনেটর রোল্যান্ড গুতেরেস বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন স্কুলটি ভেঙে ফেলার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন।

বন্দুক হামলার পর স্কুল ভেঙে ফেলার ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগে ২০১২ সালে কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যের নিউটাউনের স্যান্ডি হোক এলিমেন্টারি স্কুলে গুলিবর্ষণের ঘটনায় ছয় থেকে সাত বছর বয়সী ২০ শিক্ষার্থী ও ছয় স্টাফ নিহত হন। পরে সেই স্কুলটি ভেঙে একই জায়গায় নতুন একটি স্কুল নির্মাণ করা হয়।

টেক্সাসের জননিরাপত্তা প্রধান জানান, রব এলিমেন্টারি স্কুলে বন্দুকধারী প্রবেশের তিন মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ সদস্য উপস্থিত হন। কিন্তু পুলিশের একটি দল স্কুলটিতে প্রবেশের আগে ক্লাসরুমের বাইরে এক ঘণ্টার বেশি সময় অপেক্ষা করে। সময়ক্ষেপণ না করলে মৃতের সংখ্যা কমানো যেত বলে বিশ্বাস তার।

এ ঘটনার পর যুক্তরাষ্ট্রের সব রাজ্যে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পক্ষে বিক্ষোভ করছেন দেশটির জনগণ।