বাণিজ্য সংবাদ শিল্প-বাণিজ্য

ভোমরা ও হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আসছে ভারতীয় পেঁয়াজ

প্রতিনিধি, হিলি ও সাতক্ষীরা: পাঁচ দিন বন্ধ থাকার পর ভারত সরকার অনুমতি দেওয়ায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর ও সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে দেশটির অভ্যন্তরে আটকে থাকা পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। গতকাল দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে এ আমদানি কার্যক্রম শুরু হয়। শুধু যেসব পেঁয়াজের ট্রাকের লিও পারমিশান করা রয়েছে সেই ট্রাকগুলোই দেশে প্রবেশ করতে পারবে বলে জানিয়েছেন সিঅ্যান্ডএফ নেতারা।

গত বছরের ন্যায় এবারও হুট করে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। ফলে বংলাদেশের আমদানিকারকরা বিপাকে পরেন। এর প্রভাবে গত কয়েক দিনে বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম কয়েকগুণ বেড়ে যায়। ভারত সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আলাপ-আলোচনার পরে ভারতে যেসব পেঁয়াজ আটকা পড়ে, সেসব পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমোদন দেয়। এর ফলে গতকাল থেকে দেশে পেঁয়াজ আসতে শুরু করে। এতে দেশের বাজারেও পেঁয়াজের দাম কমতে থাকে।

ভোমরা স্থলবন্দর ব্যবসায়ীদের সংগঠন ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনে কোষাধ্যক্ষ মাকসুদ খান বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজের ট্রাক দেশে প্রবেশ শুরু হয়েছে। তবে লিও পারমিশান (সব ডকুমেন্ট কমপ্লিট) করা ট্রাকগুলোই দেশে প্রবেশ করতে পারবে। দিল্লি সরকার ভোমরাসহ তিনটি বন্দর দিয়ে ২৫ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে।

ভোমরা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, লিও পারমিশান করা পেঁয়াজ ভর্তি ট্রাক রয়েছে ৪০-৪৫টি। এগুলো ছাড়াও আরও ১২৫ ট্রাক পেঁয়াজ ভারতে আটকা পড়ে রয়েছে ব্যবসায়ীদের।

ভোমরা স্থলবন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন জানান, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে।

এদিকে, পাঁচ দিন বন্ধের পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দেশটির অভ্যন্তরে আটকে থাকা পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। গতকাল বিকাল সাড়ে ৩টায় ভারত থেকে আমদানি করা পেঁয়াজবাহী ট্রাক প্রবেশ শুরু করে। তবে শুধু গত রোববারের টেন্ডারকৃত পেঁয়াজ রপ্তানি করবেন বলে জানিয়েছেন সে দেশের ব্যবসায়ীরা। বেশ কয়েকদিন আটকে থাকায় অনেক ট্রাকের পেঁয়াজের মান খারাপ হয়ে গেছে বলে তিনি জানান।

বাংলা হিলি কাস্টমস সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট আ্যসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান লিটন বলেন, ‘গত সোমবার থেকে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। পরে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ভারত সরকারের সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের যোগাযোগের পর আজ (গতকাল) বেলা সাড়ে ৩টায় ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। আমরা ভারতের অভ্যন্তরে যে সব পেঁয়াজের ট্রাক রয়েছে, সবগুলো নেওয়ার চেষ্টা করছি। এ বিষয়ে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠক করছি। আশা করছি, সবগুলো পেঁয়াজের ট্রাক নিতে সক্ষম হবো।’

হিলি স্থলবন্দর আমদানি রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ বলেন, ‘অভ্যন্তরীণ বাজারে পেঁয়াজের সংকট ও মূল্যবৃদ্ধির অজুহাত দেখিয়ে গত সোমবার থেকে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত। এতে করে দেশে প্রবেশের অপেক্ষায় থাকা ২৫০ ট্রাক পেঁয়াজ ভারতের অভ্যন্তরে আটকা পড়ে যায়। বেশ কয়েকদিন ধরে আটকে থাকার কারণে অনেক পেঁয়াজের মান খারাপ হয়ে গেছে। অনেক পেঁয়াজের ট্রাক থেকে রস বের হচ্ছে, পচা গন্ধ বের হচ্ছে। এতে করে আমরা আমদানিকারকরা ক্ষতির সম্মুক্ষীণ হবেন। তবে কী পরিমাণ পেঁয়াজ নষ্ট হয়েছে এখনই বলতে পারছি না।’

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, ‘পাঁচ দিন বন্ধের পর আগের টেন্ডারকৃত পেঁয়াজ ভারত থেকে হিলি স্থলবন্দরে প্রবেশ করতে শুরু করেছে। সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক পেঁয়াজগুলো দ্রুত খালাস করে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..