প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

ভোলায় হঠাৎ ঝড়ে ছাত্রাবাস ও বসতঘর লণ্ডভণ্ড

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ভোলার দৌলতখান উপজেলায় হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে মাদরাসার ছাত্রাবাসসহ পাঁচটি বসতঘর লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। এতে মাদরাসার শিক্ষার্থীসহ অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার দুপুরে ভোলার দৌলতখান উপজেলার দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়ন ও ভোলার উপশহর বাংলাবাজার এলাকায় এ ঝড় হয়। খবর: ঢাকা পোস্ট।

জানা যায়, বাংলাবাজার এলাকার জামেয়া গাফরিয়া আশরাফুল উলুম মাদরাসার ছাত্রাবাসসহ একই এলাকায় গাছ পড়ে পাঁচটি বসতঘর দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এ ছাড়া গাছপালা উপড়ে পড়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে বৈদ্যুতিক সংযোগ।

তবে প্রশাসনের কোনো কর্মকর্তা এখন পর্যন্ত কোনো খোঁজখবর নেননি বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা। এতে পুরো এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জামেয়া গাফরিয়া আসরাফুল উলুম মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা রিয়াজুল ইসলাম ও মাওলানা ওমর ফারুক বলেন, বেলা সাড়ে ১২টায় মাদরাসায় শিক্ষার্থীদের ক্লাস চলাকালে হঠাৎ ঝড়ে মাদরাসার ক্লাস রুম, ছাত্রাবাস, লাইব্রেরিসহ চারটি ঘর দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এসময় আমরা মাদরাসায় ৮০ থেকে ৯০ শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে পাশের মসজিদে নিয়ে যাই। এসময় মাদরাসার প্রায় পাঁচ শিক্ষার্থী আহত হন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় খোকন মুন্সি বলেন, মাদরাসার ছাত্রদের চিৎকারে আমরা এগিয়ে এসে ভাঙা মাদরাসার ঘর থেকে তাদের উদ্ধার করি। ঝড়ে মাদরাসার চারটি টিনের ঘর দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

গাছ পড়ে বসতঘর দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়ায় একই ইউনিয়নের পশ্চিম জয়নগর গ্রামের ইউনুস মিয়ার স্ত্রী বলেন, বিল থেকে কয়েকটা মুগডাল তুলে ঘরে বসে পরিষ্কার করছিলাম। হঠাৎ কালো মেঘ করায় চারপাশ আঁধার হয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে বেসামাল বাতাসে ঘরের পাশের রেন্ডিগাছ ভেঙে ঘরের ওপর পড়ে। এতে আমার ঘড় ভেঙে তছনছ হয়ে গেছে।

একইভাবে এই ইউনিয়নে আরও দুটি এবং সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বিচ্ছিন্নভাবে ঝড়ে বসতঘর দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

এদিকে ভোলা জেলা প্রশাসক মো. তৈফিক ইলাহী চৌধুরী জানান, হঠাৎ ঝড়ে দৌলতখান উপজেলার বাংলাবাজার এলাকায় একটি মাদরাসাসহ বেশকিছু বসতঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপজেলা প্রশাসনকে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, ক্ষতির পরিমাণ তালিকা করা হচ্ছে। তালিকা করে তাদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দেন তিনি।