সারা বাংলা

ভোলাহাটে এইচএসসি পরীক্ষা দিতে পারেনি ১৭ শিক্ষার্থী

প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ: চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার ঝাউবোনা মডেল টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষের পদ নিয়ে অভ্যান্তরীণ কোন্দলের কারণে ১৭ শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষা দিতে পারেনি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শিক্ষার্থীরা ফরম পূরণের নির্ধারিত টাকা দেওয়ার পরেও তাদের প্রবেশপত্র দিতে পারেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ। ফলে তারা পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি।
ভুক্তভোগী পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ, ফরম পূরণের জন্য তাদের কাছ থেকে দুই হাজার ৭০ টাকা করে নেয় কলেজ কর্তৃপক্ষ। পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘনিয়ে আসায় পরীক্ষার প্রবেশপত্রের জন্য কলেজে গেলে শিক্ষকরা ‘আজ দেব, কাল দেব’ বলে কালক্ষেপণ করেন। পরীক্ষার দিন প্রবেশপত্র পাওয়া যাবে বলে পরীক্ষা কেন্দ্রে ডাকেন শিক্ষকরা। এমনকি বেলা ১১টায় তাদের প্রবেশপত্র দেওয়া হবে বলে জানান। বেলা ১১টায় শিক্ষিকা রেবিনা খাতুন ও শিউলি খাতুন তাদের জানান, ঢাকা থেকে ই-মেইলযোগে প্রবেশপত্র আসবে।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরীক্ষার্থীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা পারভিনের কাছে অভিযোগসহ জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কামরুজ্জামান সরদারকে বিষয়টি দেখার দায়িত্ব দেন।
কামরুজ্জামান সরদার জানান, কলেজ কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণে পরীক্ষা দিতে পারেনি ঝাউবোনা মডেল টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম ইনস্টিটিউটের ১৭ এইচএসসি পরীক্ষার্থী। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষিকা শিউলি খাতুন জানান, কারিগরি বোর্ডের কিছু জটিলতার কারণে পরিক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র পাওয়া যায়নি। পরবর্তী পরীক্ষা থেকে যেন শিক্ষার্থীরা অংশ নিতে পারে সেই চেষ্টা চলছে।
ঝাউবোনা মডেল টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিএম ইনস্টিটিউট পরিচালনা কমিটির সভাপতি আইয়ুব আলী জানান, এ ঘটনার জন্য দায়ী কলেজের অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম ও অফিস সহকারী হালিম। তারা শিক্ষার্থীদের টাকা নিয়েও প্রবেশপত্র দিতে পারেননি। পরিক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র না পাওয়ার বিষয়টি তার জানা ছিল না।

সর্বশেষ..