দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

ভ্যাট দেয় না বেনারসি পল্লির ১৩৭ প্রতিষ্ঠান!

রহমত রহমান: সুন্দর ও বৈচিত্র্যময় বুনন, নকশা ও রঙের জন্য বেনারসি পল্লির শাড়ি অপ্রতিদ্বন্দ্বী। ক্রেতার পছন্দকে পুঁজি করে রাজধানীর মিরপুরে গড়ে উঠেছে বেনারসি ব্র্যান্ডের শাড়ির ১৩৭টি প্রতিষ্ঠান। বিপুল বিক্রির আড়ালে ক্রেতা থেকে নিয়ম করে নেওয়া হয় ভ্যাট, কিন্তু তা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেওয়া হয় না। নেওয়া হয় না মূসক নিবন্ধন, প্রতিমাসে দেওয়া হয় নামমাত্র ভ্যাট। ফলে বছরের পর বছর এসব প্রতিষ্ঠান বিপুল পরিমাণ ভ্যাট ফাঁকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

সম্প্রতি বেনারসি কুঠি নামে বেনারসি পল্লির সবচেয়ে বড় একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায় কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট, ঢাকা (পশ্চিম)। প্রতিষ্ঠানের বিক্রি আর ভ্যাট ফাঁকির চিত্র দেখে বিস্মিত হন ভ্যাট কর্মকর্তারা। ফাঁকি উদ্ঘাটনে বেনারসি কুঠিসহ ১০টি প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের তথ্য যাচাই করবে ভ্যাট পশ্চিম।

ভ্যাট পশ্চিম কমিশনারেট সূত্র জানায়, বেনারসি পল্লিতে ১৩৭টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। কিছু প্রতিষ্ঠান মাসে কোটি কোটি টাকার শাড়ি বিক্রি করে, কিন্তু চালানের মাধ্যমে মাসে এক থেকে দুই হাজার টাকা ভ্যাট দেয়। দাখিলপত্র (ভ্যাট রিটার্ন) জমা দেয় না। ভ্যাট নিবন্ধন নেয় না। ফলে ভ্যাট কমিশনারেটের নাগের ডগায় এসব পল্লিতে প্রতিষ্ঠানগুলো বছরের পর বছর ভ্যাট ফাঁকি দিয়ে আসছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে অনলাইনভিত্তিক নতুন ভ্যাট আইনের আওতায় আনতে বদ্ধপরিকর ভ্যাট পশ্চিম কমিশনারেট। সেজন্য অর্থবছরের প্রথম থেকে এসব প্রতিষ্ঠানকে অনলাইন ভ্যাট নিবন্ধন নিতে প্রতিটি দোকানে লিফলেট বিতরণ করা হয়। সচেতনতা বাড়াতে করা হয় মাইকিং। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের নিয়ে কমিশনারেট সভা করে। তবুও অনলাইন নিবন্ধন নিয়ে ভ্যাট পরিশোধে প্রতিষ্ঠানগুলো আগ্রহ দেখাচ্ছে না।

সূত্র আরও জানায়, সব চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর ভ্যাট আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সে অনুযায়ী ১৩৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮৯টি প্রতিষ্ঠানকে বাধ্যতামূলকভাবে ভ্যাট নিবন্ধন দেয় কমিশনারেট। বাকিগুলো প্রক্রিয়াধীন। অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ভ্যাট পশ্চিম কমিশনারেটের ভ্যাট কর্মকর্তাদের একটি টিম মিরপুর সেকশন-১০, ব্লক-এ’র বেনারসি কুঠি নামে একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায়। এটি বেনারসি পল্লির এক নেতার প্রতিষ্ঠান বলে জানা গেছে। অভিযানে সহায়তা না করে উল্টো ভ্যাট কর্মকর্তাদের ঘেরাও করা হয়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ভ্যাট কর্মকর্তারা প্রতিষ্ঠানটি তল্লাশি করে পাঁচ মাসের বিক্রিসংক্রান্ত কাগজপত্র জব্দ করেন।

হিসাব করে দেখা যায়, প্রতিষ্ঠানটি ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে মে পর্যন্ত পাঁচ মাসে বিক্রি করে প্রায় ৯ কোটি আট লাখ ৮৪ হাজার ১৫৫ টাকা, যার ওপর ব্যবসায়ী পর্যায়ে সরবরাহের সময় সরবরাহ মূল্যের ওপর পাঁচ শতাংশ হারে ভ্যাট প্রযোজ্য। সে অনুযায়ী প্রযোজ্য ভ্যাট প্রায় ৪৫ লাখ ৪৪ হাজার ২০৭ টাকা। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি মাত্র ৯১ হাজার টাকার ভ্যাট পরিশোধ করেছে। বাকি ৪৪ লাখ ৫৩ হাজার ২০৭ টাকা ফাঁকি দিয়েছে। পাঁচ মাসে ফাঁকি দেখে কর্মকর্তারা বিস্মিত। বছরের বাকি সাত মাসে একইভাবে প্রতিষ্ঠানটি ফাঁকি দিয়েছে। এছাড়া বছরের পর বছর একইভাবে প্রতিষ্ঠানটি ফাঁকি দিয়ে আসছে। এ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকির মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভ্যাট পশ্চিম কমিশনারেট।

সূত্র জানায়, এক প্রতিষ্ঠানের ভ্যাট ফাঁকির চিত্র দেখে নড়েচড়ে বসেছে ভ্যাট পশ্চিম কমিশনারেট। পল্লির সব প্রতিষ্ঠানের ফাঁকি উদ্ঘাটনে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে প্রথমে বেনারসি কুঠিসহ ১০টি প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক লেনদেনের তথ্য যাচাই করা হবে। তথ্য চেয়ে ভ্যাট পশ্চিম থেকে আজ (বৃহস্পতিবার) বাংলাদেশ ব্যাংকে চিঠি দেওয়ার কথা রয়েছে। ব্যাংক লেনদেনের তথ্য যাচাই করে ফাঁকি উদ্ঘাটন করা হবে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বেনারসি রূপ সিংগার, গুলশান শাড়িজ, হানিফ সিল্ক, বেনারসি বাজার, বেনারসি কুঠি-১, বেনারসি কুঠি-২, বেনারসি কুঠি-৩, আল হামদ বেনারসি-১, বেনারসি বিগ বাজার ও ওয়েডিং স্টাইল।

অপরদিকে ভ্যাট কর্মকর্তাদের অভিযানের প্রতিবাদে গতকাল সব দোকান বন্ধ রেখে আন্দোলনে নামেন বেনারসি পল্লির দোকান মালিকরা। পরে স্থানীয় সংসদ সদস্য বিষয়টি সুরাহা করার আশ্বাস দিলে আন্দোলন স্থগিত করা হয়।

এ বিষয়ে বেনারসি কুঠির পার্টনার রকিবুল হাসান রবিন ভ্যাট ফাঁকির বিষয় অস্বীকার করে শেয়ার বিজকে বলেন, ‘নামমাত্র নয়, ভ্যাট অফিস যে পরিমাণ ভ্যাট দিতে বলেছে তা দেওয়া হয়। প্রতিটি দোকান পাঁচ থেকে সাত হাজার টাকা করে ভ্যাট দেয়। এরপর তারাই ঠিক করে দিল ১০ হাজার টাকা করে দিতে। এখন বলছে আমরা ফাঁকি দিই।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের বলেছে অনলাইন নিবন্ধন নিতে। এর পরও অভিযান কেন হলো বুঝতে পারছি না। আমরা দোকান বন্ধ রেখে আন্দোলন করেছি। স্থানীয় সংসদ সদস্য ভ্যাট অফিসের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সুরাহা করার কথা বলেছেন। সেজন্য আন্দোলন স্থগিত রাখা হয়েছে।’

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..