দিনের খবর প্রচ্ছদ শেষ পাতা

ভ্যাট বাড়ল আট সেবায় কমল ১৭টিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাজেটে কিছু কিছু সেবায় ভ্যাট বাড়ানো হলেও বিভিন্ন সেবায় কমানো হয়েছে। ইনডেন্টিং ফার্ম ও এসি লঞ্চ সেবার ওপর ভ্যাট ১৫ শতাংশ থেকে পাঁচ শতাংশ করা হয়েছে। এ দুটি সেবা সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে হলেও ১০ শতাংশ হারে ভ্যাট কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া আরও ১৫টি সেবায় ভ্যাট ১৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়।
অন্যদিকে কনস্ট্রাকশন ফার্ম, ফার্নিচার সরবরাহ, সামাজিক যোগাযোগ ও ভার্চুয়াল বিজনেস সেবাসহ আটটি সেবায় ভ্যাট বাড়িয়ে সাড়ে সাত শতাংশ করা হয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের উত্থাপিত বাজেটে এসব প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে যেসব সেবায় ভ্যাট কমানো ও বাড়ানো হয়েছে এর মধ্যে কয়েকটি সেবা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে সংশ্লিষ্টরা।
আগামী অর্থবছরের ১ জুলাই থেকে নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়িত হবে। নতুন আইনে ভ্যাট হার ১৫ শতাংশ ছাড়াও পাঁচ, সাড়ে সাত ও ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া ওষুধ ও পেট্রোলিয়াম পণ্যে স্থানীয় ব্যবসায়ী পর্যায়ে দুই দশমিক চার ও দুই শতাংশ হারে ভ্যাট অব্যাহত থাকছে।
বাজেটের ঘোষণা অনুযায়ী, ইনডেন্টিং ফার্ম, এসি লঞ্চ ছাড়াও প্রিন্টিং প্রেস, নিলামে পণ্য বিক্রয়, স্বয়ংক্রিয় লন্ড্রি, চলচ্চিত্র স্টুডিও, চলচ্চিত্র পরিবেশক, সিমেনা হল, রিপিয়ার ও সার্ভিসিং সেবা, সিকিউরিটি সার্ভিস, স্বয়ংক্রিয় সমিল, খেলাধুলা আয়োজক প্রতিষ্ঠান, বোর্ড সভায় অংশগ্রহণ, টেইলারিং দোকান ও টেইলারিং সেবা, বিল্ডিং ও ফ্লোর পরিষ্কারক প্রতিষ্ঠান, লটারি টিকিট বিক্রেতা, সামাজিক ও স্পোর্টস ক্লাবসহ ১৫টি সেবায় বিদ্যমান ভ্যাট হার ১৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ করা হয়েছে।
অন্যদিকে, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ও ভার্চুয়াল বিজনেস সেবায় বর্তমানে পাঁচ শতাংশ ভ্যাট রয়েছে, তা আড়াই শতাংশ বাড়িয়ে সাড়ে সাত শতাংশ করা হয়েছে। ভার্চুয়াল বিজনেসমূলক ই-কমার্স খাত। বাংলাদেশে ই-কমার্স সম্ভাবনাময় খাত। চলতি অর্থবছর ই-কমার্স সেবায় পাঁচ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করার পর বেশ সমালোচনা হয়। তবে আগামী বাজেটে তা কমানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও উল্টো আড়াই শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। ভার্চুয়াল বিজনেস ছাড়াও নিজস্ব ব্র্যান্ডসংবলিত তৈরি পোশাক বিপণন, নিজস্ব ব্র্যান্ড ব্যতীত তৈরি পোশাক বিপণন, অ্যামিউজমেন্ট পার্ক ও থিম পার্ক, নিলামকৃত পণ্যের ক্রেতা, জোগানদার সেবায় বিদ্যমান পাঁচ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে সাড়ে সাত শতাংশ করা হয়েছে। এছাড়া ফার্নিচার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ও কনস্ট্রাকশন ফার্মকে সাত শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে সাড়ে সাত শতাংশ করা হয়েছে।
অন্যদিকে বাজেটে ৯১টি পণ্য ও সেবায় পাঁচ শতাংশ হারে, ১২টি পণ্য ও সেবায় সাড়ে সাত শতাংশ হারে, ২০টি পণ্য ও সেবায় ১০ শতাংশ হারে ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..