কৃষি কৃষ্টি

মতিলাল হাইস্কুল কৃষি জাদুঘর

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা বাসস্ট্যান্ড থেকে কিছুদুর সামনে চৌয়ারীবাড়ি ভেন্যাবাড়ি মতিলাল হাইস্কুল। এ স্কুলের একটি কক্ষে রয়েছে কৃষি জাদুঘর। এখানে সংরক্ষিত প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন গবেষকদের কৌতূহল সৃষ্টি করেছে।

২০০১ সালে যাত্রা করে জাদুঘরটি। এখানে সংরক্ষণ করা আছে প্রায় তিন হাজার বছরের পুরোনো ফসিল। রয়েছে নানা রকমের জীবাশ্ম। এর মধ্যে পোকামাকড়, মৃত হাতি, বনগরু, মহিষ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। কাঠের তৈরি একটি শেলফে সাজানো রয়েছে কয়েক প্রকার শস্যবীজ। মূলত শস্যবীজ সংরক্ষণ দিয়ে জাদুঘরটির পথচলা শুরু। পর্যায়ক্রমে এখানে স্থান পেয়েছে কয়েক ধরনের বিলুপ্ত প্রজাতির উদ্ভিদ, কয়া, মাকড়সা, তেলাপোকা, ঝিঁঝিঁ পোকা, জোনাকি, পদ্মবতী পোকা, কচ্ছপের চড়া, ব্যাঙ, শামুক প্রভৃতি।

২০০১ সালের শুরুতে বাংলাদেশ সেন্টার ফর অ্যাডভান্স স্টাডিজের (বিসিএএস) সেম্প প্রকল্পের আওতায় গ্রাম ও স্কুলভিত্তিক পরিবেশবিষয়ক ক্লাব গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়। এরই অংশ হিসেবে মতিলাল স্কুলে কৃষি জাদুঘর স্থাপন করা হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জের বিভিন্ন স্থান থেকে সংগ্রহ করা হয় নিদর্শনগুলো। তখন উল্লিখিত এলাকার কয়েকটি বিলে খনন কার্যক্রম চালানো হয়। বিলুপ্ত কয়েক প্রকার ধানের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এর মধ্যে রয়েছে জয়না, সাদা গাধবা, লাল গাধবা কাওয়াকুলু, করমচামুড়ি, হরিকুষ, কাজলি, ন্যাথাপাশা, মালবুগ ও কুমড়াগোর।

এসব নিদর্শন নিয়ে গবেষণা হচ্ছে। হয়তো অদূর ভবিষ্যতে এ অঞ্চলের ভূ-প্রকৃতি ও জলবায়ু সম্পর্কে বিশদ জানার সুযোগ করে দেবে মতিলাল হাইস্কুল কৃষি জাদুঘর।

সর্বশেষ..