সারা বাংলা

ময়নাতদন্তে বিলম্ব হওয়ায় আবাসিক চিকিৎসক লাঞ্ছিত, আটক ৩

শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

প্রতিনিধি, গাজীপুর: মর্গে থাকা লাশের ময়নাতদন্ত বিলম্ব হওয়ার অভিযোগে নিহতের স্বজনরা গাজীপুরে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসককে লাঞ্ছিত করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তিন হামলাকারীকে আটক করে পুলিশ। আটকরা হলেন অন্তর, শান্ত ও বোরহান।

হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক প্রণয় ভূষণ দাস জানান, সোমবার দুপুরে হাসপাতালের মর্গে দুটি মরদেহ আসে। বিষয়টি তিনি মঙ্গলবার সকালে জানতে পারেন। দুপুর ১২টার দিকে তিনি মরদেহ দুটির ময়নাতদন্তের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় ১৫-২০ জনের একদল বহিরাগত যুবক একসঙ্গে তার অফিসকক্ষে ঢুকে চিকিৎসককে খুঁজতে থাকেন। তিনি পরিচয় দিলে তৎক্ষণাৎ তাকে মারধর শুরু করেন। কেউ কেউ লাঠিসোটা খুঁজতে থাকেন। হামলাকারীরা তার অফিসের টেবিল ভাঙচুর ও কাগজপত্র তছনছ করে। এ সময় তার অফিস সহায়ক জাহিদ বাধা দিলে তাকেও মারধর করা হয়। পরে অধ্যক্ষের অফিসের জানালা, ফুলের টব ভাঙচুর করে হামলাকারীরা।

এদিকে আবাসিক চিকিৎসককে লাঞ্ছিত এবং কলেজের আসবাবপত্র ভাঙচুরের খবর পেয়ে মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থীরা ক্লাস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। তারা তিন হামলাকারীকে আটক করে পুলিশে দেন।

সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) জাহাঙ্গীর আলম জানান, লাশের ময়নাতদন্ত করতে দেরি হওয়ার অভিযোগে বিক্ষুব্ধ স্বজনরা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসকের ওপর হামলা চালিয়েছে। এ সময় তিন হামলাকারীকে আটক করেন মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র, দায়িত্বরত আনসার সদস্য ও কর্মচারীরা। এ ব্যাপারে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার দুপুরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভোগড়া বাইপাস মোড়ে লরিচাপায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন। তারা হচ্ছেনÑসজিব সরকার (১৭) ও অনূর্ধ্ব-১৮ ক্রিকেট দলের গাজীপুরের অধিনায়ক জয় দেবনাথ (১৭)। ওইদিন দুপুরে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। মর্গে ২০ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে লাশ দুটি পড়ে থাকায় এবং দ্রুততম সময়ে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন না হওয়ায় ক্ষুব্ধ নিহত দুই কিশোরের স্বজনরা হামলা চালায়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..