প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

মাংকিপক্স মহামারি নয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

শেয়ার বিজ ডেস্ক:‘মাংকিপক্স মহামারি নয়’বিশ্বে আতঙ্ক সৃষ্টি করা রোগটি নিয়ে স্বস্তির এ খবর শোনাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। খবর: সিএনবিসি।

মাত্র দুদিন আগে এই ভাইরাসজনিত রোগটিকে মহামারি (প্যানডেমিক) আখ্যা দিয়েছিল ডব্লিউএইচও। সেই বিভ্রান্তি দূর করে এবার এই মাংকিপক্সকে অতি সংক্রামক নয় বলে উল্লেখ করল সংস্থা।

কভিড-১৯ সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যেই নতুন আতঙ্ক নিয়ে হাজির হয় মাংকিপক্স। বিশ্বের ৫০টির বেশি দেশে মাংকিপক্স-আক্রান্ত রোগীর খবর পাওয়া গেলেও এখনই মাংকিপক্সকে মহামারি বলতে নারাজ সংস্থাটি। তবে যেভাবে সংক্রমণ বেড়েছে তাতে নজরদারি চালিয়ে যেতে পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি।

সংক্রমণ বাড়লেও এখনই মাংকিপক্স উদ্বেগের কোনো কারণ নয় বলে জানায় ডব্লিউএইচও। গত শনিবার সংস্থার পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, দিন দিন সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় তৈরি হয়েছে আতঙ্ক। আফ্রিকার বাইরে বেশ কয়েকটি দেশে দিন দিন বাড়ছে সংক্রমণ। তবে তা মহামারির পর্যায়ে পৌঁছায়নি বলে মনে করছে সংস্থা। আর সংক্রমণ নিয়ে বসে থাকা ঠিক হবে না বলে মনে করছেন সংস্থার বিজ্ঞানীরা। আগাম সতর্কতা হিসেবে আরও বেশি করে নজরদারি চালানোর প্রয়োজন মনে করছেন তারা। সেইসঙ্গে প্রতি সপ্তাহে পর্যালোচনার ওপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

মাংকিপক্স নিয়ে আগামী সপ্তাহে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানোম গেব্রিয়াসুস। এরই মধ্যে বিশ্বের যে দেশগুলো মাংকিপক্স থেকে মুক্ত তারাও ভাইরাসঘটিত রোগটি নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনার পাশাপাশি বৈঠকে মাংকিপক্সমুক্ত দেশগুলোর উদ্বেগ নিয়ে আলোচনা করা হবে বলে জানায় সংস্থাটি। বর্তমানে এই রোগের মোকাবিলার চেষ্টা চলছে সর্বত্র।

জানা গেছে, এই মুহূর্তে বিশ্বে মাংকিপক্সে আক্রান্ত রোগীর মোট সংখ্যা তিন হাজার ৪১৭। বিশ্বের মোট ৫৮টি দেশে এই রোগটি ছড়িয়ে পড়েছে। মাংকিপক্সের উপসর্গগুলো নিয়ে জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতার প্রসার হওয়া উচিত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কোয়ারেন্টাইনের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখার ওপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। এসব বিষয়ে এখনই সিদ্ধান্ত না নিলে পরিস্থিতি ভয়ানক হতে পারে বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা।