সুস্বাস্থ্য

মানুষ ও প্রাণীর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় পরিবেশের বিপর্যয় ঠেকাতে হবে

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) আয়োজনে ‘ওয়ার্ল্ড ওয়ান হেলথ ডে-২০১৯’ উদ্যাপিত হয়েছে। ক্যাম্পাসে এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, অ্যানিমেল বায়োডাইভার্সিটি রোড শো, সেমিনার ও ফটোগ্রাফি কনটেস্টের পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

শোভাযাত্রার পর ‘ওয়ান হেলথ চ্যালেঞ্জেস ফর দ্য টোয়েন্টি ফার্স্ট সেঞ্চুরি’ শিরোনামে প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স রুমে একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়ান হেলথ ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ফুড সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন ও ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. জান্নাতারা খাতুন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. ইমরান বিন ইউনুস। সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন ইউএসটিসি’র সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়–য়া, ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল আহাদ, অধ্যাপক ড. পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, অধ্যাপক ড. একেএম সাইফুদ্দীন, অধ্যাপক ড. মো. কবিরুল ইসলাম খান, অধ্যাপক ড. মো. রায়হান ফারুক, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রাশেদুল আলম, অধ্যাপক ড. গউজ মিয়া ও অধ্যাপক ড. বদরুল আমিন ভূঁইয়া প্রমুখ।

অধ্যাপক ডা. ইমরান বিন ইউনুস বলেন, বিশ্বব্যাপী ওয়ান হেলথ (এক স্বাস্থ্য) ধারণা বাস্তবায়নের জন্য মানুষ, প্রাণী ও পরিবেশকে এক গ্রন্থিতে গাঁথতে হবে। এ তিন উইংকে একই সূত্রে গাঁথা গেলে নানা সংক্রামক ব্যাধি থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে। তিনি আরও বলেন, সংক্রামক ব্যাধিগুলো বিশেষ করে ম্যালেরিয়া, চিকুনগুনিয়া, ডেঙ্গু, ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রভৃতি অন্য রোগের কারণে পরিণত হচ্ছে। ফলে মানুষ বহুমাত্রিক রোগের ঝুঁকিতে রয়েছে। বহুমাত্রিক রোগের ঝুঁকি থেকে বাঁচতে হলে এখনই সচেতন হতে হবে।

সেমিনারে বক্তারা বলেন, জীবাণুবাহী কীটপতঙ্গ দ্বারা পশু-পাখি আক্রান্ত হলে মানুষ ও পরিবেশে তার প্রভাব পড়ে। সবার স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্ভর করে আশেপাশের পশু-পাখির স্বাস্থ্য ও পরিবেশের ওপর। তাই মানুষ ও প্রাণীর স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হলে যে কোনোভাবে পরিবেশ বিপর্যয় রোধ করতে হবে। পরিবেশ বিপর্যয় নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতার ওপর গুরুত্বারোপ করা হয় সেমিনারে।

‘ওয়ার্ল্ড ওয়ান হেলথ ডে-২০১৯’ উপলক্ষে মানবসমাজকে বিভিন্ন কীটপতঙ্গ ও গৃহপালিত প্রাণী হতে উদ্ভূত রোগবালাই সম্পর্কে সচেতন করা এবং রোগ প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার লক্ষ্যে দেশে প্রথমবারের মতো অ্যানিম্যাল বায়োডাইভারসিটি রোড শো’র আয়োজন করা হয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..