পর্ষদ সভা

মার্কেন্টাইল ও ব্র্যাক ব্যাংকের পর্ষদ সভা ২২ মার্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্যাংক খাতের মার্কেন্টাইল ও ব্র্যাক ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ সভা আগামী ২২ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। সভায় ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে লভ্যাংশ ঘোষণা করা হতে পারে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মার্কেন্টাইল ব্যাংক: পরিচালনা পর্ষদ সভা ২২ মার্চ বেলা ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ প্রকাশিত তৃতীয় প্রান্তিকের (জুলাই-সেপ্টেম্বর, ১৯) আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৫৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস ছিল ৬৬ পয়সা। তৃতীয় প্রান্তিক শেষে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় দাঁড়ায় দুই টাকা ৩৬ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে হয়েছিল দুই টাকা ৩৫ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ পর্যন্ত শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য ২২ টাকা ২৮ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ২২ টাকা শূন্য সাত পয়সা।

কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০১৮ সালে শেয়ারহোল্ডারদের ১৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ হিসেবে দেয়। ওই বছর ইপিএস হয়েছে তিন টাকা ৫৯ পয়সা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য ২২ টাকা ৯১ পয়সা। মুনাফা করেছিল ২৯২ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

এদিকে ডিএসইতে সর্বশেষ কার্যদিবসে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের শেয়ারদর ২০ পয়সা বা এক দশমিক ৯২ শতাংশ কমে  সর্বশেষ লেনদেন হয় ১০ টাকা ২০ পয়সায়। লেনদেন শেষে সর্বশেষ দর দাঁড়ায় ১০ টাকা ৩০ পয়সা।  এদিন কোম্পানিটির ১৬ লাখ ৭৯ হাজার ৮৫৮টি শেয়ার ৪৪৮ বার হাতবদল হয়। যার মোট মূল্য এক কোটি ৭৬ লাখ ৩৮ হাজার টাকা। গতকাল শেয়ারটির দর ১০ টাকা ৮০ পয়সা থেকে ১০ টাকা ২০ পয়সায় ওঠানামা  করে।  

২০০৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন এক হাজার ২০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ৯৩৭ কোটি ১৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা। কোম্পানির রিজার্ভে আছে ৯২৪ কোটি ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। মোট শেয়ার সংখ্যা ৯৩ কোটি ৭১ লাখ ৫৮ হাজার ৩০২টি। মোট শেয়ারের ৩৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ উদ্যোক্তা পরিচালক, ১৭ দশমিক ২০ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক, পাঁচ দশমিক ৪৬ শতাংশ বিদেশি ও ৩৭ দশমিক ৫৬ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে কোম্পানিটির মূল্য আয় অনুপাত তিন দশমিক ২৭। নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে দুই দশমিক ৮৭।

ব্র্যাক ব্যাংক: পরিচালনা পর্ষদ সভা ২২ মার্চ বেলা ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ প্রকাশিত তৃতীয় প্রান্তিকের (জুলাই-সেপ্টেম্বর, ১৯) আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৭০ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটির ইপিএস ছিল এক টাকা ছয় পয়সা। তৃতীয় প্রান্তিক শেষে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় দাঁড়ায় দুই টাকা ৭৬ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে হয়েছিল তিন টাকা ২৩ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ পর্যন্ত শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য ৩১ টাকা ৩৭ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ২৬ টাকা ৪৫ পয়সা।

কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০১৮ সালে শেয়ারহোল্ডারদের ১৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ হিসেবে দেয়। ওই বছর ইপিএস হয়েছে পাঁচ টাকা ১৭ পয়সা ও শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য ৩২ টাকা ৮৭ পয়সা। মুনাফা করেছিল ৫৬৭ কোটি টাকা।

এদিকে ডিএসইতে সর্বশেষ কার্যদিবসে ব্র্যাক ব্যাংকের শেয়ারদর এক টাকা ৪০ পয়সা বা চার দশমিক ৩৬ শতাংশ কমে সর্বশেষ লেনদেন হয় ৩০ টাকা ৭০ পয়সায়। লেনদেন শেষে সর্বশেষ দর দাঁড়ায় ৩০ টাকা ২০ পয়সা। গতকাল কোম্পানিটির ২৬ লাখ ৫৪ হাজার ৫৩৬টি শেয়ার এক হাজার ৯৩৮ বার হাতবদল হয়। যার মোট মূল্য আট কোটি ১৯ লাখ ১৩ হাজার টাকা। গতকাল শেয়ারটির দর ৩৩ টাকা ১০ পয়সা থেকে ২৯ টাকা ৮০ পয়সায় ওঠানামা করে।

২০০৭ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এ ক্যাটেগরির কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন দুই হাজার কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন এক হাজার ২৩৩ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। কোম্পানির রিজার্ভে আছে এক হাজার ৯০৬ কোটি ২৫ লাখ ৩৯ হাজার টাকা। মোট শেয়ার সংখ্যা ১২৩ কোটি ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার ৩২৭টি। মোট শেয়ারের ৪৪ দশমিক ২৯ শতাংশ উদ্যোক্তা পরিচালক, ছয় দশমিক ৮৬ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক, ৪৩ দশমিক ২৩ শতাংশ বিদেশি ও পাঁচ দশমিক ৬২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে কোম্পানিটির মূল্য আয় অনুপাত আট দশমিক ২১। নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পাঁচ দশমিক ৮৪।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..