স্পোর্টস

মাশরাফির স্ত্রীও করোনা-আক্রান্ত

ক্রীড়া প্রতিবেদক: দুঃস্বপ্নের মতো সময় কাটছে মাশরাফি বিন মর্তুজার। নিজে এখনও করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হতে পারেননি। দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও হয়েছেন পজিটিভ। এরই মধ্যে দুঃসংবাদ এলো তার স্ত্রী সুমনা হক সুমিও করোনা-আক্রান্ত। তারও আগে কভিড পজিটিভ হয়েছিলেন মাশরাফির ছোট ভাই মোরসালিন বিন মুর্তজা!

গত ২০ জুন করোনা পজিটিভ হওয়ার খবরটা পেয়েছিলেন মাশরাফি। এর পর থেকে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য চিকিৎসা নিচ্ছেন রাজধানীতে তার মিরপুরের বাসায়। দুই সন্তানকে পাঠিয়ে দেন জন্ম শহর নড়াইলে। তবে মাশরাফিকে সেবা দিতে থেকে যান স্ত্রী সুমী।

এ কারণেই সংক্রামক এ ভাইরাস সংক্রমণ করল মাশরাফির স্ত্রীকেও। কিছুদিন ধরেই খবরটা নিয়ে গুঞ্জন ছিল। যদিও জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়কের পরিবারের পক্ষ থেকে এ নিয়ে কিছুই বলা হচ্ছিল না। তবে মঙ্গলবার শেয়ার বিজকে মাশরাফির পরিবারের ঘনিষ্ঠ একজন নিশ্চিত করেছেন, সুমনা হক সুমী কভিড-১৯ পজিটিভ।

বর্তমানে ঢাকার বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন মাশরাফির স্ত্রী। করোনা-আক্রান্ত হলেও সুমির শারীরিক অবস্থা ভালো রয়েছে। মাশরাফিরও তেমন কোনো সমস্যা নেই।

কিন্তু দুই সসন্তানকে ছেড়ে থাকতে হচ্ছে বাবা-মায়ের। ব্যাপারটা বেশ যন্ত্রণা দিচ্ছে মাশরাফিকে। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সফল এই অধিনায়ক সেই কষ্টের কথা লুকাননি। মঙ্গলবার করোনাভাইরাস বিস্তার প্রতিরোধক এক ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নিয়ে মাশরাফি বলছিলেন, ‘দেখুন, আমি আমার সন্তানদের কাছ থেকে দীর্ঘ ১৭ দিন বিচ্ছিন্ন আছি। একজন বাবা হিসেবে এটা কতটা কষ্টের, তা বলে বোঝানো যাবে না। আমি আমার পরিবারের সদস্যদের থেকে বিচ্ছিন্ন আছি। তারাও আমার কাছে আসতে পারছেন না, এটা অনেক বেদনার।’

আপাতত কিছুই করার নেই। করোনা নেগেটিভ না হওয়া পর্যন্ত নিজেকে আড়ালেই রাখতে হবে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই মাশরাফির তৃতীয় টেস্ট করানো হবে।

এর আগে অবশ্য জনসেবাতেই সময় কেটেছে মাশরাফির। নড়াইলের এই সংসদ সদস্য তৃণমূলে সরাসরি কাজ করে বেশ প্রশংসিতও হয়েছেন। সুস্থ হয়ে ফের আর্ত মানুষের পাশে থাকতে চান মাশরাফি। তার আগে দেশবাসীর দোয়াও চাইলেন তিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..