প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

মিয়ানমারে সংঘর্ষে নিহত ১১

শেয়ার বিজ ডেস্ক: মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী ও সশস্ত্র বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘর্ষে চলতি মাসে অন্তত ১১ জন নিহত হয়েছে। খবর এএফপি।

গত নভেম্বর থেকে থেমে থেমে চলা সংঘর্ষে হাজারো মানুষ শান প্রদেশ ছেড়ে পালিয়েছে। অনেকে আবার চীনে পাড়ি জমিয়েছে।

প্রতিবেশী দেশটিতে উত্তেজনা ও সংঘর্ষের কারণে বেইজিং তার সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রেখেছে। রাষ্ট্র পরিচালিত পত্রিকা গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমারের খবরে বলা হয়, ২ ডিসেম্বর বিদ্রোহীদের হাতে ৯ পুলিশ সদস্য নিহত হন। এ ঘটনায় নিহত হয় দুজন বিদ্রোহীও।

রাষ্ট্রীয় এই গণমাধ্যমের হিসাবে সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর এখন পর্যন্ত অন্তত ৩০ সেনা, পুলিশ, সরকারপন্থি মিলিশিয়া ও বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে।

মিয়ানমারে বছরের পর বছর ধরে চলা জাতিগত বিদ্রোহ দমনে গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চি যে উদ্যোগ নিয়েছেন, তাতে নতুন এই সংঘাত বাধার সৃষ্টি করবে বলে মনে করা হচ্ছে। সেনানিয়ন্ত্রিত শাসনের অবসান ঘটিয়ে গত বছর নির্বাচিত সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে সু চি দেশটির জাতিগত বিদ্রোহ দমনের চেষ্টা করে আসছিলেন। উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ কাচিন ও শান এবং দক্ষিণে কারেন প্রদেশে চলমান সংঘাত সু চির শান্তি প্রচেষ্টার ওপর জল ঢেলে দিচ্ছে। একই সঙ্গে অস্ত্রবিরতিতে পৌঁছাতে আরও সময় লাগবে বলে মনে করা হচ্ছে। বিশ্লেষকরা মনে করেন, শান প্রদেশে নতুন করে এ সংঘাত আগামী ফেব্রুয়ারিতে সু চির দ্বিতীয় দফায় শান্তি আলোচনাকে হুমকির মুখে ফেলবে। একই সঙ্গে সেনাবাহিনীর ভূমিকাকে শক্তিশালী করে তুলবে। কেননা এখনও দেশটির মূল ক্ষমতা সেনাবাহিনীর হাতেই কুক্ষিগত।