প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

মুখে হাসি, প্রথম টেস্টেই ফিরছেন মুশফিক

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক: তিনি দলের অধিনায়ক, অথচ সেই ক্রিকেটারই ইনজুরিতে। সতীর্থদের শুভকামনায় এত দিন অনুপ্রেরণা পেয়েছেন। এই তো দুদিন আগে মোস্তাফিজুর রহমান তার অধিনায়কের জন্য লিখেন, ‘দ্রুত সেরে উঠুন’। ভক্ত আর সতীর্থদের এমন ভালোবাসায় নির্দিষ্ট সময়ের আগেই চোট কাটিয়ে উঠছেন মুশফিকুর রহিম। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টেই তার খেলা নিশ্চিত। গতকাল টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রে তেমন সুখবর মিলল।

কিউইদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন তিনি। প্রথম ওয়ানডেতে ক্রাইস্টচার্চে ব্যাটিংয়ের সময় পাওয়া সেই আঘাত নিয়ে ফিরেন মুশফিক। ডাক্তারি পরীক্ষার পর জানা যায় ইনজুরিটি ‘গ্রেড ওয়ান টিয়ার’। ফিরতে দুই সপ্তাহমতো সময় লাগবে বলে জানা যায়। এমনকি তার প্রথম টেস্টে না থাকার গুঞ্জনও উঁকি দিচ্ছিল।

এরপর টি-টোয়েন্টিতেও মাঠের বাইরে চলে যান এ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান। কিন্তু দ্রুত ফিরতে লড়াই শুরু করে দেন। তার সুফল মিলছে। ইনজুরি কাটিয়ে টেস্ট দলে অধিনায়কের ফেরা অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে। এখন শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণা বাকি।

গতকাল বে ওভালের নেটে অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। এ মাঠে আজ কিউইদের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি। প্রথমটি হেরে বেশ বিপাকে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে সকাল ৮টায় শুরু এ ম্যাচে কিছু একটা করে দেখাতে হবে মুস্তাফিজ-সাকিবদের। সেই অনুশীলনে ব্যস্ত থাকতে দেখা গেলো মুশফিকদের। এক প্রান্তে টাইগার কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের সঙ্গে টেস্ট দল নিয়ে আলাপচারিতায় সময় কাটালেন মুশফিকুর রহিম।

গতকাল বাংলাদেশ দল সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৮০ শতাংশ ফিট হয়ে উঠেছেন মুশফিক। এমনকি নেটে পুরোদমে ব্যাটিং শুরু করছেন। লাল বলে নেটে দীর্ঘ সময় ব্যাট চালালেন। অবশ্য অনুশীলনে বরাবরই তিনি সিরিয়াস। এবারও ব্যতিক্রম দেখা যায়নি।

টিম ম্যানেজমেন্টও হাফ ছেড়ে বাঁচল। মুশফিক নেতৃত্বে থাকায় নতুন অধিনায়ক খুঁজতে হচ্ছে না। তাছাড়া তার হাত ধরে দলও সাফল্যের ধারায় আছে। সর্বশেষ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে যে ঐতিহাসিক জয় এসেছিল, সেটা মুশির হাত ধরেই। নেতৃত্বে ছিলেন তিনিই। টেস্টে ব্যক্তিগত সাফল্যও ঈর্ষণীয়।

৫০ টেস্টের ক্যারিয়ারে করেছেন ২৭৫০ রান। টেস্টে দেশের হয়ে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি এসেছে তার ব্যাট থেকেই। মোট শতরান তিনটি। হাফসেঞ্চুরি ১৫টি। স্ট্যাম্পিং ১১। ক্যাচ ৮২টি। সেই সাফল্যকে এবার এগিয়ে নেওয়ার পালা। কিউইদের বিপক্ষে টেস্টে নামতে অনেকটাই প্রস্তুত তিনি।

মানসিকভাবেও এখন বেশ চাঙা মুশফিকুর রহিম। কিছুদিন আগে তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন স্ত্রী-সন্তানরা। বেশ কয়েকজন

সিনিয়র ক্রিকেটারের পরিবার এখন অবস্থান করছে নিউজিল্যান্ডে। গতকাল সেই তালিকায় যোগ হয় মাশরাফি বিন মুর্তজার পরিবার। অবশ্য টাইগারদের রঙিন পোশাকের অধিনায়ক টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষেই দেশে ফিরবেন। বেশ কিছুদিন ধরেই সাদা পোশাকের ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন মাশরাফি।

টেস্ট ক্রিকেট এগিয়ে যাচ্ছে মুশফিকের হাত ধরে। তবে দেশের বাইরে এবার কঠিন চ্যালেঞ্জ। এরই মধ্যে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে দল। লঙ্গার ভার্সনে দল কী করে, সেটাই এখন দেখার বিষয়!