সারা বাংলা

মুন্সীগঞ্জ ও সিরাজগঞ্জে ৬৬ জেলের দণ্ড

নিষিদ্ধ সময়ে ইলিশ শিকার

শেয়ার বিজ ডেস্ক: নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মুন্সীগঞ্জে পদ্মা ও সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীতে ইলিশ শিকারের দায়ে ৬৬ জেলেকে দণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

মুন্সীগঞ্জ: নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ইলিশ শিকার ও ক্রয় করায় মুন্সীগঞ্জের ৫৭ জেলেকে দণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গত সোমবার ও রোববার রাতে টঙ্গীবাড়ী, শ্রীনগর ও লৌহজং উপজেলায় ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে তাদের আটক করা হয়। এছাড়া গত সোমবার টঙ্গীবাড়ী উপজেলায় চার ইলিশ ক্রেতার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তারা হলেনÑখোকন আহম্মেদ, গিয়াস উদ্দিন, সিদ্দিক মালত ও জিল্লুর রহমান। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও হাসিনা আক্তার।

একই দিন সকালে শ্রীনগর উপজেলার ভাগ্যকুল ইউনিয়নে ১০ জেলেকে ইলিশ ধরার অপরাধে আটক করা হয়। তাদের প্রত্যেকে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিগার সুলতানা জানান। এদিকে গত রোববার রাত ১০টা থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত পদ্মা অভিযান চালিয়ে ৬৩ জেল ও ক্রেতাকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট রিয়াজুল রহমান ও ইলিয়াস শিকদার। সোমবার ভ্রাম্যমাণ আদালত আটকদের মধ্যে ২৮ জনকে ২০ দিন ১৭ জনের ১৭ দিন, তিনজনকে তিন দিনের কারাদণ্ড দেন। তবে ১৫ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। অভিযানে আটকদের কাছ থেকে এক লাখ মিটার কারেন্ট জাল ও ৩০০ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও অবৈধভাবে ইলিশ ধরায় ব্যবহƒত আটটি ট্রলার পদ্মায় ডুবিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ: নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে যমুনা নদীতে মা ইলিশ মাছ ধরার অভিযোগে সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে ছয় জেলেকে ১৮ দিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রম্যমাণ আদালত। গতকাল মঙ্গলবার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক দেওয়ান মওদুদ আহমেদ এ কারাদণ্ড প্রদান করেন। এর আগে ভোরে দণ্ডপ্রাপ্তদের যমুনা নদী থেকে আটক করা হয়। এ সময় ৫১ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ১৮ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়। উপজেলার মৎস্য অফিসের ফিল্ড অ্যাসিট্যান্ট শফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..