শেষ পাতা

মূলধন উত্তোলনের মেয়াদ ৬০ দিন বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলমান কভিড-১৯ মহামারি পরিস্থিতি ও সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ বিবেচনা করে সিকিউরিটি ইস্যুর মাধ্যমে মূলধন উত্তোলনের জন্য আবেদনের ক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়ের অতিরিক্ত ৬০ দিন বাড়িয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

গতকাল বিএসইসির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

কমিশনের এ সিদ্ধান্তের ফলে আইপিওতে সর্বোচ্চ ১২০ দিনের পুরোনো আর্থিক হিসাব জমা দেয়ার যে সুযোগ ছিল, তা এখন বেড়ে ১৮০ দিন হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, অধীন প্রণীত বিধিমালা, প্রবিধানমালা, নির্দেশনা এবং আদেশ অনুযায়ী নানা আর্থিক হিসাব বিবরণী, প্রতিবেদন, তথ্যাদি প্রভৃতি কমিশন বা স্টক এক্সচেঞ্জ বা ডিপোজিটরি কোম্পানিতে দাখিলের ক্ষেত্রে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধের সময়সীমা উল্লিখিত সিকিউরিটিজ আইনে নির্ধারিত সময়ের সঙ্গে অতিরিক্ত হিসেবে বিবেচিত হবে।

এছাড়া গতকালের সভায় বিদেশি কোম্পানির বাংলাদেশের মিউচুয়াল ফান্ডের উদ্যোক্তা হওয়ার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বিদেশি যেকোনো পাবলিক বা প্রাইভেট কোম্পানি দেশীয় যোগ্য উদ্যোক্তার সঙ্গে মিউচুয়াল ফান্ডের উদ্যোক্তা হতে পারবে। এক্ষেত্রে বিদেশি কোম্পানি একক বা যৌথভাবেও উদ্যোক্তা হতে পারবে। এক্ষেত্রে ট্রাস্ট অ্যাক্ট, ১৮৮২ অনুযায়ী ট্রাস্ট গঠন করতে হবে।

এ নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, কোনো বিদেশি কোম্পানি উদ্যোক্তা হিসেবে মিউচুয়াল ফান্ডের ২৫ শতাংশের বেশি মালিক হতে পারবে না।

অন্যদিকে গতকালের সভায় পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জেড ক্যাটেগরির ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের কার্যাবলিসহ আর্থিক বিবরণী বিশেষ নিরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক কোম্পানি ফারইস্ট ফাইন্যান্সের ব্যবসা তলানিতে। ২০১৭ সাল থেকে লোকসানে থাকা এ কোম্পানিটি থেকে শেয়ারহোল্ডারদের একই বছর থেকে লভ্যাংশ প্রাপ্তিও বন্ধ রয়েছে। যে কারণে কোম্পানিটি এখন ‘জেড’ ক্যাটেগরিতে। এ পতনে কোম্পানিটির ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারটি এখন ৩.৩০ টাকায়।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন
ট্যাগ ➧

সর্বশেষ..